প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সামরিক কুচকাওয়াজে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন করল উত্তর কোরিয়া (ভিডিও)

রাশিদুল ইসলাম : [২] কিম ইল সুং স্কোয়ারে দাঁড়িয়ে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন বলেন তার দেশে কোভিড ভাইরাস নেই। একই সঙ্গে সারাবিশে^র এ ভাইরাসে আক্রান্তদের আরোগ্য কামনা করেন তিনি। ভাইরাসের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী চলমান যুদ্ধর প্রশংসা করেন কিম। উত্তর কোরিয়ায় এখন পর্যন্ত এক ব্যক্তিও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি বলে দাবি করেন কিম জং-উন। এসময় বিশাল কুচকাওয়াজে নয়নাভিরাম শৈলী প্রদর্শন করে দেশটির সেনারা। উত্তর কোরিয়ার হাজার হাজার সৈনিক মাস্ক ছাড়াই কুচকাওয়াজে অংশ নেন। কুচকাওয়াজে রঙ্গীন ফেস্টুন নিয়ে অংশ নেয়া নারীরা। ডেইলি মেইল/স্পুটনিক/আরটি

[৩] কিম জং উন সমবেত জনতাকে বলেন, আমরা আত্মরক্ষার জন্য নিজেদের সেনাবাহিনীকে আরও শক্তিশালী করে তুলব। সেখানে ‘দৈত্যাকার আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র’ প্রদর্শন করে উত্তর কোরিয়া। কিম বলেন, উত্তর কোরিয়াকে হুমকি দেয়া হলে তার দেশ পরমাণু অস্ত্রের মাধ্যমে তার জবাব দেবে। মার্কিন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অত বড় আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র বিশ্বে আর নেই।

[৪] উত্তর কোরিয়া যাতে আর পরমাণু অস্ত্র না বানায়, সেজন্য মার্কিন অনুরোধ কতটা মেনে চলছেন কিম তা বোঝা মুস্কিল। তবে কিম তার দেশের ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহারের অনুরোধ ওয়াশিংটন মেনে নেয়নি। গতবছর হ্যানয়ে দুই দেশের শীর্ষ বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছিল। সেই বৈঠক ব্যর্থ হয়। যুক্তরাষ্ট্র কূটনৈতিক পথে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ রাখে।

[৫] ২০১৭ সালে আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়া। সেই ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনও স্থানে আঘাত হানতে পারে। গতবছর ডিসেম্বরে কিম বলেছিলেন, তারা একটি নতুন অস্ত্র বানিয়েছেন। সেই অস্ত্র তারা সকলকে দেখাবেন। এদিন যে ‘জায়ান্ট ইন্টার কন্টিনেন্টাল মিসাইল’ প্রদর্শন করা হয়েছে, কিম তার কথাই বলেছিলেন বলে পর্যবেক্ষকদের ধারণা।

[৬] গত জুন মাসেই দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধের হুমকি দিয়েছিল উত্তর কোরিয়া। একনায়ক কিম জং উনের বোন কিম ইয়ো জং সরকারি সংবাদ সংস্থাকে বলেন, দক্ষিণ কোরিয়ার কার্যকলাপের নিন্দা করে ঘন ঘন বিবৃতি দিয়ে লাভ নেই। ওই সব বিবৃতির ভুল ব্যাখ্যা হচ্ছে। কেউ তাতে গুরুত্বও দিচ্ছে না।

[৭] পরে কিম ইয়ো জং বলেন, ‘যা জঞ্জাল তাকে ডাস্টবিনে ফেলাই ভাল। আমাকে দেশের সর্বোচ্চ নেতা, আমাদের দল এবং সরকার যে ক্ষমতা দিয়েছে, তার জোরে আমি সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি, এবার তারাই ভেবে দেখুক, দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া যায়।’

[৮] উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশনে প্রচারিত ভিডিও ফুটেজে ২২ চাকার লরির উপর স্থাপিত বিশাল ক্ষেপণাস্ত্রটি কুচকাওয়াজে এগিয়ে যেতে দেখা যায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত