প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়া ৭৭ জনের শরীরে করোনা

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়া ৭৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। ইতালির বাংলাদেশ মিশন ঢাকায় এ সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট পাঠিয়েছে। করোনা পরীক্ষার ভুয়া সার্টিফিকেট নিয়ে ওই যাত্রীদের কেউ কেউ ইতালি গেছেন বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম তথ্য প্রকাশ করেছে। সর্বশেষ বুধবার ইতালি যাওয়া ১৬৮ বাংলাদেশিকে দেশটির বিমানবন্দর থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। ফেরত পাঠানো যাত্রীদের মধ্যে চারজনের শরীরে উচ্চ মাত্রার জ্বর ছিলো। মিলান কনস্যুলেটের দায়িত্বশীল একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এদিকে আগামী ৫ই অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইতালিয়ান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এই নিষেধাজ্ঞার ফলে বাংলাদেশে থেকে আর কোনো যাত্রী ও ফ্লাইট ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবে না।মানবজমিন

১৬৮ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর পর দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ায় কোনো এয়ারলাইন্স বাংলাদেশ থেকে যাত্রী আনতে পারবে না। এমনকি কোনো ট্রানজিট ফ্লাইটেও যাত্রী আনা যাবে না, যারা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। ইতালি সরকারের এমন ঘোষণার পর গতকাল কাতার এয়ারওয়েজ জানিয়েছে- ৫ই অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে ইতালিগামী কোনো যাত্রী তাদের ফ্লাইটে নেয়া হবে না। জানা গেছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যেই বাংলাদেশ থেকে কয়েকটি চার্টার্ড ফ্লাইট পরিচালনা করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। এসব ফ্লাইটে ইতালি যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে অন্তত ৩৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয় বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানায়।

সর্বশেষ ৬ই জুলাই বাংলাদেশ থেকে রোমে যাওয়া একটি ফ্লাইটের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রীর শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। এরপর বাংলাদেশের সঙ্গে এক সপ্তাহের জন্য সব ধরনের ফ্লাইট বাতিলের ঘোষণা দেয় ইতালি। এই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে দোহা হয়ে বাংলাদেশিদের ইতালি যাওয়া এবং বিমানবন্দর থেকে ফিরিয়ে দেয়ার খবরের মধ্যেই নতুন করে দীর্ঘ নিষেধাজ্ঞার তথ্য জানায় ইতালি। বাংলাদেশ মিশন জানায়, বুধবার দোহা হয়ে ১৮৩ বাংলাদেশি ইতালি যান। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ভয়ে তাদেরকে বিমান থেকে নামতেই দেয়নি কর্তৃপক্ষ। ফ্লাইটের যাত্রীরা সারাদিন বিমানবন্দরে অবস্থান করেন। পরে দেশটির কর্তৃপক্ষ ইতালিয়ান পাসপোর্টধারী ১৪ জন ও মানবিক কারণে বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা একজন নারীকে দেশটিতে রাখা হয়েছে। বাকি ১৬৮ বাংলাদেশিকে দোহাগামী ফিরতি ফ্লাইটে তুলে দিয়েছে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ।

এদিকে, বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়া প্রবাসীদের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্তের পর ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে ইউরোপীয় এই দেশটিতে। এনিয়ে দেশটির গণমাধ্যমে বাংলাদেশের করোনা টেস্ট নিয়ে নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। ‘ইল মেসেজেরো’ পত্রিকার লিড নিউজে দেশের করোনা পরীক্ষার নানা চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়- বাংলাদেশ থেকে টাকার বিনিময়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া সার্টিফিকেট নিয়ে ওই যাত্রীরা ইতালি গেছেন। যাদের অনেকেই করোনা ভাইরাসের জীবাণু বহন করেছে। এ কারণে ইতালিতে নতুন করে ঝুঁকি বাড়তে পারে বলে মনে করছেন দেশটির কর্তৃপক্ষ। ইল মেসেজারোরের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ থেকে যাওয়া কাতার এয়ারওয়েজ রোমের ফিউমিসিনো বিমানবন্দরে অবতরণ করার পরও সেসব আরোহীদের বিমান থেকে নামতে দেয়া হয়নি। একই দিনে কাতার এয়ারওয়েজের ফ্লাইটটিতে থাকা অন্যান্য দেশের ৮০ যাত্রী নামার অনুমতি পেয়েছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত