প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]করোনায় ঝুঁকি নিয়ে জীবন বিপন্ন করে মানবতার সেবা করছে পুলিশ: কথাসাহিত্যিক মনজুরুল ইসলাম

সুজন কৈরী : [২] করোনা প্রদুর্ভাবে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে দেশবরেণ্য কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ সদস্যরা অপরাধ নিয়ন্ত্রণসহ তাদের প্রতিদিনের কাজগুলো করার পাশপাশি অতিরিক্ত চাপ সামলাচ্ছেন। অনেক পুলিশ সদস্য ১২ থেকে ১৬ ঘণ্টা একটানা কাজ করছেন। এরপরও এই দূর্যোগের সময় তারা এগিয়ে এসেছেন। আক্রান্তদের হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন। যারা মারা গেছেন তাদের অনেকের সৎকার করেছেন পুলিশ সদস্যরা। বাড়িতে বাড়িতে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া, পাড়া-মহল্লায় সচেতনতা সৃষ্টির পরও তারা বিভিন্ন স্থানে জীবানুনাশক স্প্রেও করছেন।

[৩] রেবাবার মনজুরুল ইসলামের একটি ভিডিও বার্তা বাংলাদেশ পুলিশের ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয়। সেখানে মনজুরুল ইসলাম বলেন, সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও এক মহা বিপর্যয়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এ বিপর্যয়ের নাম আমরা জানি করোনা ভাইরাস মহামারী। এর আঘাতে শক্তিশালী অনেক পশ্চিমা দেশ কাবু হয়ে গেছে। এ যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতে হবে। না হলে আমাদের বর্তমান এবং ভবিষ্যত দুটিই আমাদের হাত থেকে চলে যাবে। এ যুদ্ধে জয়ী হতে আমাদের প্রত্যেকের কিছু কাজ করতে হবে। প্রথমত সরকারি ও স্বাস্থ বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে পাওয়া নির্দেশনাগুলো মেনে চলতে হবে। দ্বিতীয়ত আমাদের মানবিক হতে হবে। আর তৃতীয়ত যারা এ যুদ্ধে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়া ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থকর্মী ও জরুরি সেবাকর্মী, মিডিয়া কর্মীর পাশপাশি আইনশৃক্সক্ষলা বাহিনীর পাশে আমাদের দাড়াতে হবে। তাদের দেয়া নির্দেশনাগুলো মানতে হবে।

[৪] পুলিশ বাহিনীর কথাটা আমি বিশেষ করেই বলি। আমরা ভাল কাজের প্রশংসা সাধারণত করিনা। এখন আমাদের প্রশংসা করার সময়। আমি দেখতে পাচ্ছি আমার চারপাশে দুই লাখের বেশি পুলিশ সদস্য সারাদেশে ছড়িয়ে আছে। তারা ঝুঁকি নিয়ে নিজেদের জীবন বিপন্ন করে মানবতার সেবা করে যাচ্ছেন। প্রতিদিনের কাজের পাশাপাশি করোনায় অতিরিক্ত চাপ সামলাচ্ছেন। তাদের এই বোঝাগুলো আমরা হালকা করতে পারি যদি আমরা তাদের কথাগুলো মানি এবং স্বাস্থবিধি মেনে চলি। পুলিশ সদস্যরা মানুষকে বোঝাচ্ছেন, প্রতিদিন তারা আক্রান্ত মানুষদের সংস্পর্শে আসছেন।

[৫] মনজুরুল ইসলাম বলেন, নিজেদের জীবন বিপন্ন করে যখন দাড়াচ্ছেন, তখন নাগরিক হিসেবে আমাদের উচিৎ হবে তাদের সমর্থনে এগিয়ে আসা। আমি দেশবাসীকে অনুরোধ করি যে, করোনা প্রতিরোধে সম্মুখে থেকে যুদ্ধ করা পুলিশ সদস্যদের করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানাই এবং প্রশংসা করি। আর পুলিশ সদস্যদের আমি বলি, আপনারা যে কাজটি করছেন, এটি অত্যন্ত মহৎ ও মানবিক। এই সময়ে মানবিক দায়িত্ব পালন করছেন। কথাটি আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। আপনারা জানবেন দেশবাসী আপনাদের কাজের প্রশংসা করছে। আমরা সবাই চাচ্ছি যে, আপনাদের মনোবল অটুট থাকে। আপনারা যেন সুস্থ থাকেন। আপনাদের সুসাস্থ আমাদের সকলের কাম্য।

বাংলাদেশ পুলিশ নিয়ে সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের প্রশংসা, প্রার্থনা ও প্রত্যয়ের কথা

বাংলাদেশ পুলিশ নিয়ে দেশবরেণ্য কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের প্রশংসা, প্রার্থনা ও প্রত্যয়ের কথাBANGLADESH POLICE PHQ, MEDIA[26 APR 2020]

Gepostet von Bangladesh Police am Samstag, 25. April 2020

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত