প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্কুল থেকে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার তিন ছাত্রী, আটক ২

বাংলাদেশ প্রতিদিন : স্কুল থেকে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া তিন ছাত্রী। রবিবার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার সাতকুয়া পাহাড়ি এলাকায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় এক ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সোমবার দুপুরে অজ্ঞাতনামা ৫-৭ জনের বিরুদ্ধে ঘাটাইল থানায় মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

জানা যায়, গত রবিবার টাঙ্গাইলের ঘাটাইলের একটি বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের দোয়া ও বিদায় অনুষ্ঠান ছিল। ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির চার ছাত্রী বিদ্যালয়ে এসে পাহাড়ি এলাকায় ঘুরতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। দুপুর দেড়টায় তারা ঝড়কা গেলে তাদের সাথে যোগ দেয় বন্ধু হৃদয় ও শাহীন। পরে তারা অটোরিক্সাযোগে সাতকুয়া এলাকায় গেলে ৫-৭জন ব্যক্তি তাদের ঘিরে ফেলে। এসময় তাদের বন্ধু হৃদয় ও শাহীনকে মারধর করে তিনজনকে ধর্ষণ করে এবং অপর একজনকে ভাগ্নির মতো দেখা যায় বলে তাকে ধর্ষণ করা থেকে বিরত থাকে।
দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত আটকে রেখে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা। পরে ওই চার ছাত্রী তাদের একজনের নানীর বাড়িতে আশ্রয় নেয়। সেখান থেকে মোবাইল ফোনে অভিভাবকদের বিষয়টি জানালে তারা পুলিশকে অবহিত করে। পরে পুলিশ সেখান থেকে তাদের উদ্ধার করে। এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন ধর্ষিতা এক স্কুল ছাত্রীর চাচী।

টাঙ্গাইল জেনালে হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. তানভীর আহমেদ বলেন, হাসপাতালে আনার পর ভর্তি করা হয়েছে। শারীরিকভাবে কিছুটা ভালো থাকলেও মানসিকভাবে তারা বিপর্যস্ত। মেডিকেল টিম গঠন করে তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এ চিকিৎসক।

ঘাটাইল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো.সাইফুল ইসলাম বলেন, মেয়ে চারজন পাহাড়ে বেড়াতে গেলে তিনজন মেয়েকে ধর্ষণ করে। থানায় মামলা হয়েছে আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আটকের বিষয়ে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, এই ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত