প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সকলের সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে হবে, বললেন কানিজ ফাতেমা

আলআমিন ভূঁইয়া :চাঁদপুর সদর উপ‡জলার ৬নং ˆমৈশাদী  ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে কার্যকর ও জবাবদিহিমূলক (ইএএলজি) আওতায় উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ এবং নারী উন্নয়ন ফোরাম সদস্যদের পারস্পরিক শিখন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় ৬নং মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদের সম্মেলন কক্ষে

এই আয়োজন করা হয়।

এতে ৬নং মৈশাদী  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও চাঁদপুর জেলার শ্রেষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিকের সভাপতিত্বে ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোঃ আবু বকর মানিকের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, জনপ্রশাসন পদকপ্রাপ্ত চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কানিজ ফাতেমা।

কানিজ ফাতেমা বলেন, আজকের এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমার উপজেলা সম্মানিত হয়েছে। চাঁদপুরের মধ্যে সেরা ইউনিয়ন পরিষদ এই মৈশাদী ইউনিয়ন। আমি আজকে পরিষদে ঢুকতে একটি বিলবোর্ড দেখলাম সেখানে লেখা মুজিব বর্ষ। এ থেকেই বুঝা যায় এই ইউনিয়ন পরিষদ মুজিববর্ষ কে বরণ করে নিয়েছে। এতে আমি মুগ্ধ হয়েছি, চেয়ারম্যান সাহেবকে ধন্যবাদ। আপনার প্রত্যেকটা কাজ সুন্দর, সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খল ভাবে করা হয়েছে। সকল চেয়ারম্যানরা ভালোভাবে কাজ করেনা। তবে বেশিরভাগ চেয়ারম্যানই আন্তরিক। আমি এই রুমে যখন কথা বলছি, দরজা যখন বন্ধ ছিল, তখন মনে হল ঢাকার কোনো কনফারেন্স রুমে বসে কথা বলছি।

তিনি বলেন, সবাই এই পরিষদ থেকেও আপনারা নতুন নতুন ধারনা অর্জন করতে পারেন।

এই ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনেকেই সেবা নিচ্ছেন। আজকে যারা অন্য উপজেলা থেকে এসেছেন আপনারা দেখবেন কিভাবে কাজ করছে। আমাদের শেখার কোন বয়স নেই, তাই শিখতে হবে। ৬নং মৈশাদী ইউনিয়ন চমকের পর চমক দেখাচ্ছে। এতে জনগনের উপকার হয়েছে। দেখার মাধ্যমেও ভালো কিছু শিখা এবং ধারনা অর্জন করা যায়। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করছে।

এগুলো আমরা, ইউনিয়ন পরিষদের  জনপ্রতিনিধি ও সচিবদের সহযোগিতার মাধ্যমেই বাস্তবায়ন করতে হবে। ভালো পরিবেশে কাজ করলে ভালো কিছু করা যায়। শিক্ষামন্ত্রী আমাদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন, আমরা তা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করি। আপনারা এরকম মডেল ইউনিয়ন গুলোতে এসে দেখবেন, এতে নতুন নতুন ধারনা অর্জন করতে পারবেন। মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সেবাসহ সব দিক থেকেই এগিয়ে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ৬নং মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও চাঁদপুর জেলার শ্রেষ্ঠ ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক বলেন, আমাদের সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। সকলের সমন্বয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমি যখন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই, তখন এ বিষয় কিছুই জানতাম না। প্রতিদিনের শেখার চেষ্টায় জেনেছি। আপনারা সচিবরা অনেক কিছু জানেন, আপনারাসহ সকলে মিলে কাজ করতে হবে। আমার ইউনিয়নকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য মিটিং করেছি, আলোচনা করেছি। আমাদের ই-লাইব্রেরী ও স্টুডেন্ট কর্নার প্রাক্তন জেলা প্রশাসক মোঃ আবদুস সবুর মন্ডল স্যার উদ্বোধন করেছেন। ইচ্ছাশক্তি হচ্ছে বড় শক্তি, ইচ্ছা থাকলে সব করা সম্ভব। মানব সেবার মধ্যেই নিজেকে উৎসর্গ করতে হবে।

চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্যাররা যদি কাজ করতে পারেন, আমরা কেন কাজ করতে পারবনা।  আমাদেরও চেষ্টা করতে হবে প্রত্যেক ইউনিয়নকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য। যেকোনো কাজ ধৈর্য্য সহকারে করতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদের সচিবরা যদি ইচ্ছা করে এই কাজটি করব, তাহলে আপনারা সফলতা পাবেন। আমাদের ইউএনও স্যাররা প্রত্যেকে আমাদের কাজে সহযোগিতা করছেন। আপনারা সচিবরাও যদি সহযোগিতা করেন তাহলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সহজ হবে।

এসময় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, হাইমচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌসী বেগম, ডিস্টিক ফ্যাসিলিটর (ইএএলজি) নুরউদ্দিন মামুন, ডিস্টিক ফ্যাসিলিটর (এলজিএসপি-৩) মোঃ  রিয়াজ উদ্দিন, সহকারি প্রোগ্রামার মোঃ হারুনুর রশিদ, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মাজুদা বেগম, বাংলাদেশ  চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি ও বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাহ, ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালুথুবা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ হারুনুর রশিদ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা শাখা বাপসার সভাপতি ও আশিকাটি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সুলতান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক ও হানারচর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব এম.এ কুদ্দুস রোকন, চাঁদপুর জেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেষ্ট শিক্ষক মোঃ জাকির হোসেন, স্বাস্থ্য পরিদর্শক মনির হোসেন তালুকদার, কৃষি কর্মকর্তা খোকন চন্দ্র চক্রবর্তী, ৬নং মৈশাদী ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান শিল্পী বেগম, ৩নং ওয়ার্ড সদস্য বজলুল গনি জিলন, মৈশাদী ইউনিয়নের বিবাহ রেজিস্টার মোঃ আবদুল্লা আল মামুন, মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদের ই-লাইব্রেরী শিক্ষার্থী নাজমুন আক্তার।

 

এছাড়াও অনুষ্ঠানে ৬নং মৈশাদী  ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ১নং ওয়ার্ড সদস্য হাকিম গাজী, ২নং ওয়ার্ড সদস্য কালাম ব্যপারী, ওয়ার্ড সদস্য মোশারফ বেপারী, ৫নং ওয়ার্ড সদস্য সেলিম বেপারী, ৬নং ওয়ার্ড সদস্য দেলোয়ার হোসেন, ৭নং ওয়ার্ড সদস্য বারেক খান, ৮নং ওয়ার্ড সদস্য আবুল হোসেন খান, ৯নং ওয়ার্ড সদস্য ফারুক সরকার, ৬নং মৈশাদী ইউনিয়ন কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শিহাব উদ্দিন পাটওয়ারী, তথ্য সেবা কর্মকর্তা ফাতেমা আক্তার, উপ-সহকারি কৃষি অফিসার শিখা রানী, আব্দুর রশিদ, এ.আই টেকনিশিয়ান শরীফ খান, শাহতলী ভূমি অফিসের উপ-সহকারি ভুমি কর্মকর্তা বিশ্বনাথ দাশ, ইউপি সচিব নির্মল কৃষ্ণ পাল, ইব্রাহীম খলিল, শ্যামল চন্দ্র মহাজন, নীলকমল ইউপি সচিব, মাহমুদ আমিন, নীলকমল ইউপির সংরক্ষিত ইউপি সদস্য আছিয়া বেগম, ইসলামাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের সচিব রাজিব চন্দ্র ভক্ত, দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সচিব নুরুল ইসলাম, ৫নং রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব রাকিবুল হাসান খান, মতলব উত্তর বাগানবাড়ি ইউপি সচিব মহিউদ্দিন আহম্মেদ, বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মহিবুল আহসান, ৬নং দক্ষিন উপাদী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব শংকর আশ্চার্য্য, পালাখাল মন্ডল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মৃনাল কান্তি পোদ্দার, ইউপি সচিব ইয়াকুব আলী, দক্ষিন রায়শ্রী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সঞ্জিব চন্দ্র, পূর্ব চিতাষী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মৃত্যুঞ্জয় চক্রবর্তী, ইউপি সচিব ফররুখ আহম্মেদ, ইউপি সচিব মোস্তফা খান উপস্থিত ছিলেন। সম্পাদনা:জেরিন

 

 

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত