প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জনগণ এখন নিজেকে ভোটের সাথে সম্পৃক্ত করতে পারে না, বললেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

জুনায়েদ কবির : বুধবার রাতে বিএনপি দলীয় এ সংসদ সদস্য ও সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের “আজকের বাংলাদেশ” নামক অনুষ্ঠানে আরো বলেন, বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালসহ দুই ওয়ার্ড কাউন্সিলের ওপর হামলার কারণে মনে হচ্ছে আবারও একদলীয় একটি নির্বাচন হতে যাচ্ছে ।

তিনি বলেন, মানুষের মধ্যে এখন ভীতি কাজ করে, প্রার্থীদের ওপর হামলা হতে পারলে তাদের ওপরও হামলা হতে পারে । আর তাই মানুষের মধ্যে এখন এক ধরনের ভোট বিমুুখীতা তৈরি হয়েছে। মানুষ এখন বিশ্বাস করে তাদের ভোট নেতৃত্ব নির্বাচন করতে পারেনা, তাই তারা এখন ভোট কেন্দ্রে যেতে চায় না ।

তিনি আরো বলেন, সরকার দলীয় দুই জন সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সমন্বয়ের দায়িত্ব পালন করছেন। অথচ তারাই আইন করেছিল যে সিটি নির্বাচনে দলীয় সংসদ সদস্যরা প্রচরণা করতে পারবে না। এ বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রজ্ঞাপন জারির পরেও সরকার দলীয় সংসদ সদস্যরা তা শুনছেন না । শুরু থেকেই আমরা দেখছি নির্বাচন আচরণ বিধি লঙ্ঘনের মহড়া চলছে যার পুরো সুবিধাটা যাচ্ছে সরকারদলীয়দের পক্ষে ।

তিনি বলেন, শহরের কোথাও আমাদের পোষ্টার দেখা যাচ্ছে না কারণ আমাদের সমর্থকদের বাধা দেয়া এবং তাদেরকে ভয় দেখানো হচ্ছে। এছাড়া নেতাদের পুরোনো মামলায় নতুন করে ও প্রচারণা মিছিলের শেষ দিক থেকে গ্রেফতার করা হচ্ছে ।

বিএনপির এ সংসদ সদস্য বলেন, যদি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ হয়, যদি নির্বাচনে ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে ,যদি পোলিং এজেন্টরা তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারে, যদি ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দিতে পারে, তাহলে বিএনপি দুই সিটিতেই বিপুল ব্যবধানে জয়ী হবে । সম্পাদনা : মহসীন কবির

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত