প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গণ গ্রেপ্তারের হুমকি ও পুলিশের আচারণে ক্ষুব্ধ আবরারে ছোট ভাই ফাইয়াজ (ভিডিও)

জেরিন আহমেদ: নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত এসপি মোস্তাফিজুর রহমানের প্রত্যাহার চেয়েছেন। ফেসবুকে দেয়া এক ভিডিও ফুটেজে আবরার ফাইয়াজ এ দাবি জানান।

তিনি অভিযোগ তুলে বলেন, বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম আমাদের এখানে এসেছিলেন। তার উচিত ছিলো আমার মায়ের সাথে দেখা করা। কিন্তু তিনি তা করেননি। যখন ফিরে যাচ্ছিলেন তখন আমি উনার সাথে দেখা করতে গিয়েছিলাম কিন্তু এখানকার দায়িত্বে থাকা
এ্যডিশোনাল এসপি মোস্তাফিজুর রহমান আমার বুকে কনুই দিয়ে আঘাত করে সরিয়ে দেয়। আমার ভাবিকে পুলিশ দিয়ে বেধড়কভাবে মারা হয় এবং তার শ্লীলতাহানি করা হয়েছে। এটা বাংলাদেশের পুলিশেরকোন ধরনের আচারণ।

ফাইয়াজ প্রশ্ন তুলে বলেন, কালকে আমার ভাইয়ের জানাযা শুরু হওয়ার আগে এসপি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন ২ মিনিটের মধ্যে জানাযা শেষ করতে হবে।জানাযার মত একটা কাজে কিভাবে সে এরকম একটা কথা বলে। আমরা এই এডিশোনাল এসপির প্রত্যাহার চাই।

ফাইয়াজ আরো বলেন যেহেতু এতো দিন ধরে এত কিছু হয়ে গেলো আমার ভাইয়ের হত্যাকারীরা হাসতে হাসতে বের হয়ে হয়ে গেলো কিন্তু তাদেরকে কিছু করা হলো না। তারা মেরে বসে থাকলো। আর যখন আমার ভাইয়ের ব্যাপারে ভিসির সাথে কথা বলতে যাই তারা কেনো আমাদের গায়ে হাত তুলল।

ফাইয়াজ আরও অভিযোগ তুলে বলেন পুরো এলাকায় কেন আজ অচেনা লোকজনে ভরে গেছে। এখানে অনেক ক্যামেরা সাংবাদিক আছে আপনারা দেখবেন এরা কারা। আমার ভাইয়ের কয়েকটা বন্ধু আর গ্রামবাসীকে পুলিশের এডিশোনাল এসপি হুমকি দিয়ে বলেছে এখানে কোনো বিক্ষোভ আর মানব বন্ধন করা হয় তাহলে এক সপ্তাহ পর এখান থেকে ক্রমাগতভাবে গ্রেফতার শুরু হবে বিনা বিচারে।

আবরার ফাইয়াজ আরও বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা শুনতে পারছি যে আমাদের যদি কোন ধরনের অতিরিক্ত সমস্যা হয় শুট এট সাইডেরও অর্ডার দেয়া হয়েছিলো।

সাংবাদিকরা মূল ঘটনা জানতে চাইলে আবরারের ছোট ভাই বলে ভিসি যখন চলে যাচ্ছিলেন আমি তার কাছে জানতে চাইছিলাম এই যে দুই তিন দিন হলো যারা আমার ভাইকে মারছে তাদেরকে কেনো এখনও বহিষ্কার করা হলো না।পুলিশ যদি এমন করে তাহলে আমরা কোথায় যাবো ? কার কাছে আমার ভাইয়ের হত্যার বিচার চাবো? প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চাই, এটা কেমন স্বাধীন দেশ, এখানে থেকে আমাদের কি লাভ।

দফায় দফায় হুমকি দেওয়া হচ্ছে #শহীদ_আবরারের পরিবার কে😠😠😠

Gepostet von MD Ashraful Islam am Mittwoch, 9. Oktober 2019

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত