প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেই পাকিস্তানের হার

স্পোর্টস ডেস্ক : ওয়ানডে সিরিজে হারের পর টি-টোয়েন্টিতে দারুণ কিছুর প্রত্যাশায় ছিল সম্প্রতি এই ফরম্যাটে উড়তে থাকা পাকিস্তান। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের পর হেরেছে সফরকারীরা।

কেপ টাউনে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে রেজা হেনড্রিকস ও অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিসের হাফ সেঞ্চুরিতে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৯২ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শোয়েব মালিক ও হুসাইন তালাদের ব্যাটে লড়াইয়ের আভাস দিলেও শেষপর্যন্ত ওভারে ৯ উইকেটে ১৮৬ রানে থামে পাকিস্তান। ফলে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৬ রানের হারে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে গেলে শোয়েব মালিকের দল।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই জিহান ক্লোটিকে হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। দ্বিতীয় উইকেটে ডু-প্লেসিসের সঙ্গে ১৩১ রানের জুটিতে অনেক দূর এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। দলটির হয়ে অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেন। ৪৫ বলে ৬ চার ও ৪টি ছক্কায় ৭৮ রান করেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৪ রান করেন রেজা হেনড্রিকস। এছাড়া জিহান ক্লোটি ১৩ ও ডেভিড মিলার ১০ রান করেন।

লক্ষ্য তাড়ায় ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৪ রানেই ফখর জামানকে হারায় পাকিস্তান। তারপর বাবর আজমের সঙ্গে ৮১ রানের জুটি গড়ে ফিরে যান হোসাইন তালাত। পরের ওভারে ডেভিড মিলারের সরাসরি থ্রোয়ে রান আউট হয়ে যান আজম।
এরপর একক নৈপুণ্যে সফরকারীদের আশা বাঁচিয়ে রাখেন মালিক। জয়ের জন্য শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। বড় শট খেলতে গিয়ে তৃতীয় বলে অধিনায়ক ফিরে গেলে জয়ের আশা নিভে যায় পাকিস্তানের। দলটির হয়ে ৩১ বলে ৫ ছক্কা ও এক চারে সর্বোচ্চ ৪৯ রানের ইনিংস এসেছিল মালিকের ব্যাট থেকে। এছাড়া হুসাইন তালাত ৪০ ও বাবর আজম ৩৮ রান করেছিলেন।

আগামীকাল রোববার জোহানেসবার্গে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত