প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন ৯ সংবাদ প্রতিবেদক

মতিনুজ্জামান মিটু : দ্বিতীয় বারের পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন ৯ জন সংবাদ প্রতিবেদক। শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়নে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ৫ ক্যাটাগরিতে ৯ জন সংবাদ প্রতিবেদকের হাতে তুলে দেয়া হয় পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’। বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি) এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।
‘দৈনিক সংবাদপত্র’ ক্যাটাগরিতে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পুরস্কার পান যথাক্রমে দৈনিক জনকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার রহিম শেখ, দৈনিক কালেরকন্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার আবুল কাশেম এবং দি ইনডিপেন্ডেন্ট এর বিজনেস রিপোর্টার শরীফ আহমেদ। ‘ঢাকার বাইরের সংবাদপত্রের প্রতিবেদন ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার লাভ করেন চট্টগ্রামের দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ এর প্রধান প্রতিবেদক নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া। ‘টিভি ও রেডিও’ ক্যাটাগরিতে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পুরস্কার পান- যমুনা টেলিভিশনের স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট সুশান্ত সিনহা, চ্যানেল-২৪ এর স্টাফ করেসপন্ডেন্ট মাসুম খান এবং এটিএন নিউজ এর সিনিয়র রিপোর্টার গোলাম কাদির রবু। বার্তা-সংস্থা ও অন-লাইন ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার পান বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বিএসএস) এর স্টাফ রিপোর্টার মহিউদ্দিন কাদের। ‘পোল্ট্রি ও কৃষি বিষয়ক ম্যাগাজিন ও অনলাইন’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার লাভ করেন এগ্রিনিউজ২৪.কম এর এস.এম মুকুল।

প্রাইজমানি হিসেবে প্রথম পুরস্কার বিজয়ীকে ৫০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় বিজয়ীকে ৪০ হাজার টাকা এবং তৃতীয় পুরস্কার বিজয়ীকে ৩০ হাজার টাকা দেয়া হয়। তাছাড়া ঢাকার বাইরের দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদ, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন এবং পোল্ট্রি ও কৃষি ম্যাগাজিন/অনলাইনের পুরস্কার বিজয়ীদের প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট দেয়া হয়।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- দৈনিক প্রথম আলো’র সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম, যমুনা টেলিভিশনের বিজনেস এডিটর সাজ্জাদ আলম খান তপু, কৃতি ক্রিড়াবিদ শিরিন সুলতানা ও টাঙ্গাইলের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী খামারি মাসুদ রানা। সভাপতিত্ব করেন বিপিআইসিসি প্রেসিডেন্ট মসিউর রহমান।

বিপিআইসিসি প্রেসিডেন্ট বলেন, বাংলাদেশে যে দ্রুত গতিতে পোল্ট্রি শিল্প বাড়ছে সেভাবে বুদ্ধি, পরামর্শ ও সুযোগ দেয়া না গেলে এ খাতকে রক্ষা করা যাবেনা। পোল্ট্রি বর্জ্য নিয়ন্ত্রণের কার্যকর ব্যবস্থার নিশ্চয়তা ছাড়া কাউকে পোল্ট্রি শিল্প করতে দেয়া যাবেনা। সাম্প্রতিক সময়ে ডিম ও মুরগির মাংসের দাম রেকর্ড পরিমান কমেছে। খামারিরা অসহায় হয়ে পড়েছে। এখনও দেশে প্রচুর মানুষ অপুষ্টিতে ভুগছে। এ অবস্থার পরিবর্তনে কাজ করছে পোল্ট্রি শিল্প। তথ্য মন্ত্রণালয় আন্তরিক হলে ডিম ও মুরগির মাংস সম্পর্কে সচেতনতামূলক প্রচার প্রচারণা অনেক সহজ হবে।

পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড এর জুরি বোর্ডের সদস্যরা বলেন, বিগত কয়েক বছরে গণমাধ্যমে পোল্ট্রি বিষয়ক রিপোর্টর সংখ্যা বেড়েছে। একই সঙ্গে বেড়েছে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনের মান। তবে নারী সাংবাদিকদের অংশগ্রহণ বেশ কম।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত