শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৯ জুন, ২০২২, ১২:৩৯ দুপুর
আপডেট : ২৯ জুন, ২০২২, ০৫:১৯ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রোগীর পেটে ২৩৩ কয়েন, পেরেক, চুম্বক ও ব্যাটারি

অস্ত্রোপচার

ডেস্ক রিপোর্ট: পেটের অসহ্য ব্যথায় ভুগছিলেন এক যুবক। তার নাম বুরহান দেমির। ৩৫ বছরের ওই ব্যক্তির পেটে হঠাৎ করে ব্যথা শুরু হয়। এরপর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আল্ট্রাসাউন্ড এবং এক্স-রে ব্যবহার করে এন্ডোস্কোপি করার পর চক্ষু কপালে উঠে যায় চিকিৎসকদের! তার পেটে ২৩৩ রকমের জিনিসের খোঁজ পান তারা। কয়েন, ব্যাটারি, চুম্বক, স্ক্রু এবং কাচের টুকরা-এসব ছিল ওই যুবকের পেটে। ঘটনাটি তুরস্কের। বুরহান তুরস্কের ভান প্রদেশের ইপেকিওলু জেলা শহরের বাসিন্দা। 

হাসপাতালের এক চিকিৎসক জানান, অস্ত্রোপচারের সময় দেখা গেছে ওই ব্যক্তির পাকস্থলির প্রাচীরে দু’টি পেরেক একবারে গেঁথে গিয়েছিল, বৃহদন্ত্রে বিভিন্ন ধাতব সামগ্রী ও পাথরও পাওয়া যায়। ব্যক্তির পেট থেকে ২৩৩ রকম জিনিস বের করতে সফল হই আমরা।

চিকিৎসকরা জানান, এমন ঘটনা কোনও সুস্থ মানুষের ক্ষেত্রে সচরাচর শোনা যায় না। শিশু কিংবা মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এ ধরনের প্রায়ই ঘটতে দেখা যায়।

যদিও ঠিক কীভাবে ওই ব্যক্তির পেটে এই জিনিসগুলো গেল তা জানা যায়নি। আপাতত সেই ব্যক্তি সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এই অস্ত্রোপচার কবে হয়েছে তা জানা যায়নি। তবে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে বিষয়টি এসেছে গত ১৫ জুন।

রোগী বুরহান স্থানীয় গণমাধ্যমের কথাও বলেছেন। তিনি বলেন, আমাকে এই হাসপাতালে রেফার করা হয়। এখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর অস্ত্রোপচার করা হয় এবং পেট থেকে এসব জিনিস বের করা হয়। তিনি বলেন, আমি ডাক্তারদের তাদের মনোযোগ এবং সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানাই।

তবে কীভাবে এসব তার পেটে গেল এবং কবে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে, সে সম্পর্কে ওই প্রতিবেদনে কিছু বলা হয়নি। সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়