শিরোনাম
◈ জি এম কাদেরের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালনে বাধা নেই : হাইকোর্ট ◈ ১০ টাকায় টিকিট কেটে চক্ষু পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী ◈ বন্দি জঙ্গিরা যেন রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতা চালাতে না পারে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা থেকে দুর্নীতি নির্মূল করাই আমাদের লক্ষ্য: হাইকোর্ট ◈ মুজিব কোট পরলেই মুজিব সৈনিক হওয়া যায় না: কাদের ◈ ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন পরীমণি ◈ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগকারিদের জন্য বিশেষ সুযোগ  ◈ রংপুর সিটি নির্বাচনে মোস্তাফাকে লাঙ্গলের মেয়র প্রার্থী ঘোষণা রওশনের ◈ পুলিশে ছেয়ে গেছে চীনের রাজপথ ◈ টাঙ্গাইলে বাসচাপায় দুই ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত

প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর, ২০২২, ০৭:২৮ বিকাল
আপডেট : ২০ নভেম্বর, ২০২২, ০২:১৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে টুইটার!

টুইটার

সঞ্চয় বিশ্বাস: বেশ কয়েক বছর ধরেই নানাবিধ সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বিশ্বের বৃহৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার। ইলন মাস্ক মালিক হওয়ার পর সে সংকট যেন আরও প্রকট হয়েছে। তাহলে অবশেষে কি চিরতরে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে টুইটার। এমনটাই ভাবছেন টুইটার ব্যবহারকারীরা। জাগোনিউজ

‘রিপটুইটার’ বা ‘শান্তিতে থাকো টুইটার’ এই ধরনের হ্যাশট্যাগ এখন বহুল প্রচলিত হয়েছে। এমনকি অনেক ব্যবহারকারীই টুইটার থেকে নিজেদের তথ্য সরিয়ে নিজের সংরক্ষণে রাখছেন। এমনকি টুইটার ছেরে অনেক গ্রাহকই অন্য প্ল্যাটফর্মে শিফট হচ্ছেন এমনটাই শুনা যাচ্ছে টুইটকারীদের কাছ থেকে।

টুইটারের শীর্ষ এক ব্যবহারকারী মার্টিন লুইস তার ২০ লাখ ফলোয়ার রয়েছে। শোনা যাচ্ছে, তিনি নাকি টুইটার থেকে ম্যাস্টোডনে শিফট করছেন। যদিও লুইস নিজেই বলেছেন যে, ম্যাস্টোডন কীভাবে ব্যবহার করতে হয়, তা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা নেই তার।

এদিকে, ইলন মাস্ক এমন একজন মানুষ যিনি নিজেকে নিয়ে সমালোচনার বিপরীতেও মজা নিতে ভুল করেন না। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়া টুইটারকে কবর দিয়ে দেওয়া হয়েছে এমন একটি মেমে নিজেই টুইট করেন ইলন।

ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, টুইটারের নতুন মালিক ইলন মাস্ক বলেছেন, বৃহস্পতিবারের (১৮ নভেম্বর) মধ্যে এ ধরনের চুক্তিতে সই করবেন না, তাদের তিন মাসের বেতন কাটা হবে। এ মেইল পাওয়ার পরে আরও অনেকেই টুইটার থেকে চাকরি ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

অনেকের মতে টুইটারের সবচেয়ে বড় দুটি দুর্বলতা রয়েছে, যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির অস্তিত্বকে বিপন্নতার মুখে ফেলতে পারে তা হলো- ১. হ্যাক হওয়ার আশঙ্কা ও ২. নিজেদের সার্ভার না থাকা।

২১ শতকের বাস্তবতায় সাইবার-নিরাপত্তা যেকোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হওয়া একপ্রকার বাধ্যতামূলক। কিন্তু গত সপ্তাহে টুইটারের সাইবার-নিরাপত্তা বিভাগের প্রধান লিয়া কিসনার চাকরি ছেড়েছেন। এ অবস্থায় টুইটার যে কোনো সময় বড় ধরনের হ্যাকিংয়ের কবলে পড়বে না তার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

এসবিটু/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়