শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৬ আগস্ট, ২০২২, ০৫:০৯ বিকাল
আপডেট : ০৬ আগস্ট, ২০২২, ০৫:০৯ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

জাতীয় মহিলা পার্টির মতবিনিময় সভা 

মিনহাজুল আবেদীন: গুলশানে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শনিবার বিকেলে জাতীয় মহিলা পার্টির উদ্যোগে শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জাপার কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক করভী মিজান সভা পরিচালনা করেন। 

করভী মিজান বলেন, সংগঠন শুধুমাত্র ঢাকা শহরে নয়, শহরের ড্রইং রুম পলিটিক্সে বিশ্বাস করি না। শহরের বস্তিসহ পুরো বাংলাদেশে জেলায় জেলায় গ্রামে গ্রামে জাতীয় মহিলা পার্টি একটি শক্তিশালী দল হিসেবে গড়ে উঠবে। 
তিনি বলেন, আজ বাংলাদেশে পুরুষ অপেক্ষা নারীর সংখ্যা বেশি। এর অর্থ বোঝেন? আর বসে থাকা চলবে না। কাজ করতে হবে। দেশকে সামনে নিতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারীদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। 

করভী মিজান বলেন, গত বিএনপি আমলে আমাদের নেত্রী বিদিশা এরশাদের নখ উপড়ে ফেলা হয়েছিলো। তাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলো। কিন্তু নারীর শক্তি অসীম। বিদিশা এরশাদ তার পুত্রকে বুকে নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন নিজ শক্তিবলে। আমরা ক্যানো পারবো না?  আমাদের মূলমন্ত্র হবে ভগিনীত্ব ও সম্প্রীতি। সহিংসতা নয়। দলের যোগাযোগ বাড়ানোর জন্য শীঘ্রই মহিলা দলের অফিশিয়াল ওয়েব সাইট, ফেসবুক পেজ ও ইন্সটাগ্রাম চালু হবে।

করভী মিজান হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, ভাড়া করা কোনো কর্মীর স্থান জাতীয় মহিলা পার্টিতে নেই। দলাদলি বা লবিং-এর স্থান নেই। আমাদের কাজের মান ও পরিধি বাড়াতে হবে। আমাদের নেত্রী বিদিশা এরশাদ। পরিচয় লাঙল। এবং আমাদের দল জাতীয় পার্টি।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বিদিশা এরশাদ জাতীয় মহিলা পার্টি নিয়ে অত্যন্ত আশাবাদী। তিনি বলেছেন, নারী ক্ষমতায় আসতে পারে এটা পুরুষরা মেনে নিয়েছে। নারীর ক্ষমতায়নে পুরুষেরাও সহযোগিতা করেছেন। সংবিধান অনুযায়ী সকল ক্ষেত্রেই নারীর অগ্রাধিকার। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এরশাদ তার ক্ষমতাকালে যৌতুকরোধ ও বাল্য বিবাহ বন্ধসহ নারী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করেছেন। বর্তমান প্রধানমন্ত্রীও সকল ক্ষেত্রে নারীদের অগ্রাধিকার নিশ্চিত করেছেন। আমাদের নীতিতেও নারীরা প্রাধান্য পাবেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাপা কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মেজর (অব.) শিকদার আনিসুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক নাফিজ মাহবুব, নির্বাহী কমিটি সদস্য পীরজাদা সৈয়দ যোবায়ের আহম্মেদ।

অনুষ্ঠানে ত্রিশাল, মানিকগঞ্জ, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, ভাটারা, পুরান ঢাকা, উত্তরাসহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মহিলারা উপস্থিত হন। এছাড়া ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা এলাকা থেকে মহিলাদের একটি গ্রুপ জাতীয় মহিলা পার্টিতে যোগদান করেন। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়