শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৬ জুলাই, ২০২২, ০৬:৪৭ বিকাল
আপডেট : ০৬ জুলাই, ২০২২, ০৮:২৫ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মোহাম্মদ নাসিমের অভাব প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে অনুভব হবে: আব্দুর রহমান

আব্দুর রহমান

শাহীন খন্দকার: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোঃ আব্দুর রহমান প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, মোহাম্মদ নাসিম জনগণের নেতা ছিলেন। তিনি যখন যে দায়িত্ব পেয়েছেন সেখানেই সফলতা দেখিয়েছেন। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি আওয়ামী লীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া দায়িত্ব সফলতার সাথে পালন করেছেন।

আব্দুর রহমান বলেন, পদ পেলেই কেউ নেতা হয় না। জনগণ ও নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় একজন মানুষ নেতা হয়। মোহাম্মদ নাসিম তেমনই সকলের ভালোবাসার নেতা ছিলেন। আওয়ামী লীগের এই নেতা আরো বলেন বলেন, '১৯৯৬ সালে দল ক্ষমতায় আসার পর তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেলেন। নেত্রীর দেয়া দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে তিনি সফলতার সাথে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছিলেন।

আব্দুর রহমান আরো বলেন, তিনি যখন যে দায়িত্ব পেয়েছেন তার সফলতা ও দেখিয়েছেন। তিনি আজীবন দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে জীবিত থাকবেন।' বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সাবেক মন্ত্রী, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সাবেক সদস্য ও ১৪ দলের সাবেক মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিমের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ‘আমাদের অস্তিত্বে ও মননে মরহুম মোহাম্মদ নাসিম’ শীর্ষক স্মরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে আজ বুধবার (৬জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন মিলনায়তনে এ কর্মসূচির আয়োজন করে সিরাজগঞ্জ পেশাজীবী পরিষদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। 

স্মরণ সভায় আলোচনার মুখ্য বক্তা প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় বলেন, আমার বাবা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজীবন কাজ করে গেছেন। তিনি  সিরাজগঞ্জসহ সারা বাংলাদেশের গণমানুষের নেতা ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশের কল্যাণে মোহাম্মদ নাসিমের অবদান অনেক। তিনি কমিউনিটি ক্লিনিক, নার্সিং ইনস্টিটিউট ও কলেজ, ম্যাটস প্রতিষ্ঠাসহ স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে যে কাজ করেছেন তা ইতিহাস হয়ে থাকবে। বিএসএমএমইউর বাজেট বৃদ্ধিতে তিনি গুরুপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।  

অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ আরো বলেন, এক সময় দেশে মোবাইলে কল করলেও ৩২ টাকা লাগত আবার কল রিসিভ করলে ও ৩২ টাকা লাগতো। তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পরে মোবাইল কল মানুষের নাগালে নিয়ে এসেছেন। তাই মোহাম্মদ নাসিম তাঁর কাজের মাধ্যমে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়