শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৪:৪৪ সকাল
আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০১:৩৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

সারাদেশে সম্মেলন, তুমুল ব্যস্ত আওয়ামী লীগ

এম এম লিংকন: আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে চলতি বছরের ডিসেম্বরে। অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে সহযোগী সংগঠনগুলোর মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সম্মেলন। সম্মেলনকে সামনে রেখে নেতা-কর্মীরা দলীয় কার্যক্রমে তৎপরতা বাড়িয়েছেন। সেই সঙ্গে কাক্সিক্ষত পদ পেতে চলছে পদপ্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ। দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষ করে দেশে ফিরলে দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠক ডাকবেন। সেই বৈঠকেই কেন্দ্রীয় সম্মেলনের তারিখ চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান। 

তিনি বলেন, দলের সভাপতি যখন সময় দিবেন, তখনই আমরা এই নিয়ে বসবো এবং কেন্দ্রীয়সহ সহযোগী সব সংগঠনের সম্মেলনের তারিখ চূড়ান্ত করা হবে। তবে ডিসেম্বরে জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে ভিতরে ভিতরে গঠনতন্ত্র, ঘোষণাপত্র সংশোধনের কাজ চলছে। আর অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলন নভেম্বরের মধ্যে শেষ করার প্রক্রিয়া চলছে।   

আওয়ামী লীগের সর্বশেষ কেন্দ্রীয় সম্মেলন হয়েছিল ২০১৯ সালের ২০ ও ২১ ডিসেম্বর। দলটির গঠনতন্ত্রের অনুযায়ী ডিসেম্বরের ২৩ তারিখ বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হচ্ছে। এরমধ্যেই আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যথাসময়েই সম্মেলনের প্রস্তুতি নিতে দলীয় নেতা-কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন । একই সঙ্গে মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা-সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন দ্রুত করার তাগিদ দিয়েছেন তিনি। 

এ সব সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডি কার্যালয়ে দলের প্রবীণ, সিনিয়র, সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলার নেতাদেরও আনাগোনা দেখা যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। সবাই কাঙ্ক্ষিত পদ পেতে দলে নিজেদের অবদান তুলে ধরছেন। 

বর্তমানে ২০টির মত জেলায় সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। ৭৮টি সাংগঠনিক জেলার মধ্যে এখনো ৩৩টি জেলা সম্মেলন বাকি। চলতি বছরের নভেম্বরের মধ্যেই মেয়াদোত্তীর্ণ সব জেলার সম্মেলন শেষ করার টার্গেট রয়েছে। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়