শিরোনাম
◈ মিয়ানমারের ২৮৫ জন সেনা ফেরত যাবে, ফিরবে ১৫০ জন বাংলাদেশি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ ভারতে লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফায় ভোট পড়েছে ৫৯.৭ শতাংশ  ◈ ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ গড়ার কাজ শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী: ওয়াশিংটনে অর্থমন্ত্রী ◈ দাম বেড়েছে আলু, ডিম, আদা ও রসুনের, কমেছে মুরগির  ◈ ২০২৫ সালের মধ্যে ৪৮টি কূপ খনন শেষ করতে চায় পেট্রোবাংলা ◈ ভিত্তিহীন মামলায় বিরোধী নেতাকর্মীদের নাজেহাল করা হচ্ছে: মির্জা ফখরুল ◈ বিনা কারণে কারাগার এখন বিএনপির নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানা: রিজভী ◈ অপরাধের কারণেই বিএনপি নেতা-কর্মীদের  বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী  ◈ অ্যাননটেক্সকে জনতা ব্যাংকের সুদ মওকুফ সুবিধা বাতিলের নির্দেশ বাংলাদেশ ব্যাংকের ◈ চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা ৪১ দশমিক ৩ ডিগ্রি, হিট এলার্ট জারি 

প্রকাশিত : ০৩ এপ্রিল, ২০২৪, ০২:৪০ রাত
আপডেট : ০৩ এপ্রিল, ২০২৪, ১১:১৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

নানামুখী চাপ উপেক্ষা করে বিএনপি জামায়াতের ঘনিষ্ঠতা বাড়ছে

জামায়াতের ইফতার মাহফিলে মির্জা আব্বাস

শাহানুজ্জামান টিটু: [২] নির্বাচন কমিশনের অনিবন্ধিত রাজনৈতিক দল জামায়াত রাজনীতিতে আবারও সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা করছে। দীর্ঘ ৯ বছর পর প্রকাশ্যে রাজধানীর একটি হোটেলে ইফতার মাহফিল করেছে। জামায়াতের আমীরের ডা. শফিকুর রহমানের সাথে একই টেবিলে ছিলেন বিএনপির সিনিয়র নেতারা। একইভাবে বিএনপির ইফতার মাহফিলেও জামায়াতকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। সেখানে জামায়াতের আমীরসহ ৪ শীর্ষ নেতারা শরীক হন। 

[৩] জামায়াত আমীর বলেছেন, বিএনপির সঙ্গে জোটে না থাকলেও আন্দোলন সংগ্রামে সমর্থন দিয়ে এক সাথে কাজ করবেন। তিনি এমন এক সময়ে এই ঘোষণা দিলেন, যখন ভারতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্কের বিষয়টি সর্বত্রই আলোচনায় আছে। 

[৪] পর পর কয়েকটি ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির শীর্ষনেতারা সরাসরি ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন,  ‘বাংলাদেশের পাতানো নির্বাচনের মদতদাতা ভারত।’

[৫] গত ২০ মার্চ  ভারতীয় পণ্য বর্জনের বিষয়টি সামনে এনে আবারো আলোচনায় আসে বিএনপি। যদিও দলটির শীর্ষ নেতৃত্ব থেকে ভারত ইস্যুতে কোনো আনুষ্ঠানিক বক্তব্য এখনো দেওয়া হচ্ছে না। 

[৬] রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে এটা বিএনপির কৌশলী অবস্থান। কয়েকবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি সরাসরি ভারতের বিরুদ্ধে অবস্থান নেবে না। কারণ দলটি জানে ভবিষ্যতে ক্ষমতায় এলে প্রতিবেশী বন্ধু দেশ হিসেবে তাদেরকে বাদ দিয়ে চলা সম্ভব নয়। তারা এখন যেটা করছে তা ভারত বিরোধী সেন্টিমেন্টকে বিএনপির পক্ষে রাখতে। এর মাধ্যমে দলটি ভারতকেও এক ধরনের চাপে রাখতে চায়। 

[৭] বিএনপির নেতাদের কেউ কেউ বলছেন, তারা ভারতের বিরোধিতা করছেন না বরং ভারতের ক্ষমতাসীনদের বোঝাতে চাচ্ছেন; তারা বাংলাদেশের জনগণের সাথে সর্ম্পক না রেখে, জনগণের মতামতের গুরুত্ব না দিয়ে একটি দলকে অব্যাহত ভাবে সর্মথন দিচ্ছে। এটা দুটি বন্ধু রাষ্ট্রের জন্য মঙ্গলজনক নয়।   

[৮] দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে থেকে বিএনপি ভারতের সঙ্গে সর্ম্পক উন্নয়নে নানা ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করলেও তা কার্যত ভারতের মধ্যে আস্থা আনতে পারেনি। কিংবা ভারতও বিএনপিকে আস্থায় নিতে পারেনি। জামায়াত ইস্যুতে ভারত সব সময় তাদেরকে মৌলবাদী সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে দেখে। ভারত ও বিভিন্ন বিদেশী শক্তির আস্থা ও সমর্থন পেতে বিএনপি জামায়াতের সঙ্গে সর্ম্পকের দূরত্ব তৈরি করে।

[৯] আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভারত পাশে ছিল বলেই নির্বাচনে বড় রাষ্ট্র হস্তক্ষেপ করতে পারেনি। তার এই বক্তব্যের পর বিএনপি ও জামায়াত ঘনিষ্ঠতার বিষয়টি আবারও প্রকাশ্যে আসে।  

[১০] জামায়াতের আমীর জানান, বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের সর্ম্পক অটুট আছে। আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে জোটে না থাকলেও সর্ম্পকের কোনো ঘাটতি নেই। ভবিষ্যতে বিএনপির সঙ্গে জামায়াত সব ধরনের কর্মসূচি এগিয়ে নেবে।


[১১] জানা গেছে, এই মুর্হুতে বিএনপি জামায়াত এক মঞ্চে আসবে না। সরকার বিরোধী যুগপৎ আন্দোলনে থাকা দলগুলোর মত তারাও একই কমসূচি পালনে আরো সক্রিয় হবে। এর আগেও ৭ জানুয়ারির নিবার্চন ঘিরে বিএনপির সঙ্গে থাকা ৩৭ দলের যুগপৎ আন্দোলনে অংশ নিয়েছে জামায়াত। 

[১২] বিএনপি ও জামায়াতের সর্ম্পক এগিয়ে যাচ্ছে, আশা করি আরো এগোবে। এমনটাই বললেন জামায়াতের একজন সহকারি সেক্রেটারি জেনারেল। এসব বিষয়ে বিএনপির নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা এখনই কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়