শিরোনাম

প্রকাশিত : ০২ জুলাই, ২০২২, ১২:২৪ রাত
আপডেট : ০২ জুলাই, ২০২২, ১২:২৪ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

তরুণ উদ্যোক্তা প্রকৌশলী রানা মাসুদ পেলেন গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড

রাজীব আহমেদ : বিগত বছর গুলোর ধারাবাহিকতায় “কানেক্টিংদি লিডার; লিডিং দিওয়ার্ল্ড” স্লোগানে“গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ সামিট এন্ড এ্যাওয়ার্ড -২০২২” ২৪ জুনব্যাংককের রয়্যাল থাই আর্মি ক্লাবে “গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্ট” এবং “জাতিসংঘ শান্তি কমিশন” এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়।

 “ইনোভেট ইনঞ্জিনিয়ারিং এন্ড ডেভেলপমেন্ট” এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সি ই ও ইঞ্জিনিয়াররানা মাসুদ“গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড” অর্জন করেছেন।

এই আয়োজনের উদ্বোধনী দিন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন থাইল্যান্ডের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি মিনিস্টার এইচ ই ড. কালায়া সফনপানিচ, বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউনাইটেড নেশন পিস কিপারস ফেডারেল কাউন্সিলের (ইউএনপিকেএফসি) প্রেসিডেন্ট এইচ ই ড. আফিনিতা চৈচনা, থাই রাজপরিবারের সদস্য এইচ ই ওয়ানচাই নাওয়ারাত, গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের সভাপতি দিওয়াকার আরয়াল প্রমুখ।অনুষ্ঠানটিতে বিশ্বের প্রায় ৩৩ টি দেশ অংশগ্রহণ করেছে। বিভিন্ন পর্যায়ের যাচাই বাছাইয়ের পর সারা বিশ্বের থেকে মাত্র কয়েকজনইয়ংলিডারকে তাদেরবিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত করা হয়েছে। 

রানা মাসুদ‘রুয়েট’ থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বি.এসসি.“এশিয়ান ইনিস্টিটিউট অব টেকনোলজি” (এ আই টি), থাইল্যান্ড থেকে “টল বিল্ডিং” বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে দেশ এবংদেশের বাইরে, হাই-রাইজ বিল্ডিং, পাওয়ার প্ল্যান্ট, এল পি জি প্ল্যান্ট, জেটি ও এম্ব্যাঙ্কমেন্ট ডিজাইনের  ক্ষেত্রেসাস্টেইনেবল এবং গ্রিন-কনসেপ্টের  পারফরম্যান্স-ভিত্তিক ইঞ্জিনিয়ারিং সমাধান দিয়ে যাচ্ছেন যা ভূমিকম্প প্রতিরোধী এবং পাশাপাশি একটি সাশ্রয়ী এবং কার্যকর সমাধান নিশ্চিত করছে।

তিনি বর্তমান সরকারের “পাওয়ার ও এনার্জি সেক্টরে স্বনির্ভর বাংলাদেশ” নীতিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছেন। তিনি এবং তার প্রতিষ্ঠিত কোম্পানি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরণের সরকারি ও বেসরকারি আনুমানিক ১০০০ মেগাওয়াট  বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের ইঞ্জিনিয়ারিং কনসালটেন্সি করেছেন। তিনি বাংলাদেশে সর্বপ্রথম বাণিজ্যিক ভাবে নির্মিত ৫০ মেগা ওয়াট সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের ডিজাইনার ছিলেন। ইতোমধ্যে তার প্রতিষ্ঠান ‘ইনোভেট ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ আফ্রিকা মহাদেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের পূর্ণ ইঞ্জিনিয়ারিং কনসালটেন্সি করার অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন।তিনি ও তার প্রতিষ্ঠান এর বদৌলতে ক্রিটিকাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং সল্যুশন এখন দেশেই সম্ভব হচ্ছে। এটাই দেশের একমাত্র কোম্পানি যাখানে এক সঙ্গে স্থাপত্য, কাঠামোগত, যান্ত্রিক, বৈদ্যুতিক এবং অন্যান্য নির্মাণ সমাধান সহ সকল ইঞ্জিনিয়ারিং সমাধান প্রদান করে। ইনোভেট তার সকল কার্জক্রমে ‘থ্রী-ই কন্সেপ্ট’ অনুসরণ করে, যার মাধ্যমে তারা সুচারু, কার্জকর ও সাশ্রয়ী ইঞ্জিনিয়ারিং সমাধান প্রদান করে।বর্তমানে তিনি একটি জিটুজি প্রোজেক্ট (ই এস পি এস এন) এর স্ট্রাকচারাল ডিজাইন এক্সপার্ট হিসেবে কাজ করছেন। তার প্রতিষ্ঠিত কোম্পানিতে তিনি তরুণ মেধাবী ও ভিশনারিদের কাজের সুযোগ দিয়ে বিশ্বমানের দক্ষ করে গড়ে তুলেন। তিনি তার প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে তরুণ, আগ্রহী ও উদ্যমীদের জন্য সাবজেক্টিভ ডিগ্রী অর্জনে স্কলারশীপের ব্যবস্থা করে থাকেন। এছাড়াও তিনি অনগ্রসর সমাজে শিক্ষার আলো ছড়াতে বিভিন্ন সময়ে নানা রকম সামাজিক কাজে যুক্ত থাকেন।

রানা মাসুদ বলেন, “এই অর্জন আমার কাজের পরিধিকে আরো বিস্তৃত করতে সহায়তা করবে। এই অর্জন সম্ভব হয়েছে আমার ও আমার কোম্পানির সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায়। ‘টেকসই ও উন্নত বিশ্ব’ বিনির্মাণে ‘থ্রী-ই কন্সেপ্ট’ (ইফিসিয়েন্ট, ইফেক্টিভ এবং ইকনমিকাল সল্যুশন) এবং সাস্টেইনেবলইঞ্জিনিয়ারিং সল্যুশনকে বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই।“

তিনি আরো বলেন,“আমার প্রতিষ্ঠান দেশীয় তরুন মেধাবী প্রকৌশলী দের বিশ্ব মঞ্চে তুলে ধরার জন্য দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয়ে ডিজাইন প্রতিযোগিতা আয়োজন করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে।এবং আমি বিশ্বাস করি এর মাধ্যমে আমাদের দেশের ইঞ্জিনিয়ারদের সাথে অন্যান্য দেশের ইঞ্জিনিয়ার দের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা ভাগ করে নেয়া সহজ হবে এবং বৈশ্বিক মেলবন্ধনের সুযোগ তৈরি হবে।“

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়