শিরোনাম
◈ বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য ভিসা বন্ধ করল আরব আমিরাত ◈ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সাথে সেনাবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ ◈ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাত ◈ এ সংঘর্ষ কোনভাবেই কাম্য নয়, দোষীদের বিচারের দাবি করছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ◈ খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে দলীয় নেতা-কর্মী ও বিত্তবানদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ◈ ৬ দিন বন্ধের পর ফের চালু ইন্টারনেট ◈ বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মীর নাশকতার ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার তথ্য মিলেছে: ডিবির হারুন ◈ চট্টগ্রাম এবং বরিশালে স্বল্প পরিসরে যাত্রীবাহী বাস চলাচল শুরু ◈ বুধবার থেকে খোলা থাকবে অফিস আদালত: জনপ্রশাসনমন্ত্রী  ◈ নরসিংদীতে জেল পালানো কয়েদি আত্মসমর্পণের জন্য জড়ো হয়েছেন প্রায় একশোর মত

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী, ২০২৩, ০৫:৩৫ বিকাল
আপডেট : ২৭ জানুয়ারী, ২০২৩, ১১:২৫ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বাংলাদেশে গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ 

শামসুদ্দিন পেয়ারা

শামসুদ্দিন পেয়ারা, ফেসবুক থেকে: পৃথিবীর মানচিত্রে চোখ বুলিয়ে দেখুন, কোনো মুসলিম রাষ্ট্রেই গণতন্ত্র নেই। বাঙলাদেশ একটি মুসলিম রাষ্ট্র, কাজেই বাঙলাদেশে কখনো গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে, এমন ধারণা করা বোকামি। এখানে প্রথাগত গণতন্ত্রের কোনো ভবিষ্যত নেই। এখানের মানুষ কর্তৃত্ববাদ পছন্দ করে। ক্ষমতাবানের তাচ্ছিল্য ও নির্যাতনকে বাঙালি মুসলমান তার জন্য গৌরবজনক মনে করে। 

এদেশের মানুষ ইহকালের কষ্ট দূর করার চাইতে পরকালের আনন্দ উপভোগ করতে বেশি আগ্রহী। সে লক্ষেই তাদের জীবনের সকল কাজকর্ম, আশা আকাঙ্ক্ষা ও স্বপ্ন পরিচালিত। তারা স্কুলের চাইতে মাদ্রাসাকে, শিক্ষকের চাইতে মোল্লা-মৌলভিকে,  জ্ঞানার্জনের চেয়ে জ্ঞানবর্জনকে, বিজ্ঞানের চাইতে কল্পকাহিনীকে, ঔষধের চাইতে ঝাড়ফুঁক তাবিজ কবচকে, ক্লাস লেকচারের চাইতে ওয়াজ মাহফিলকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করে, মাটির তলায় সাতটি অতি উন্নত পৃথিবী আছে এবং এন্টারকোটিক নামের এক সুড়ঙ্গপথ দিয়ে সেখানে যেতে হয় বলে বিশ্বাস করে এবং evolutionism-কে মিথ্যা ও creationism-কে সত্য মনে করে। 

তারা বিজ্ঞানের চাইতে বিশ্বাসের উপর বেশি আস্থাশীল। জ্ঞান চলমান, নিয়ত পরিবর্তনশীল ও নবায়নযোগ্য। বিশ্বাস স্থির, নিশ্চল ও অপরিবর্তনীয়। জ্ঞান জলস্রোতের ন্যায় এগিয়ে চলে বৃহত্তর জ্ঞানসমুদ্রের দিকে, বিশ্বাস স্থির প্রস্তরের ন্যায় একঠাঁয় দাঁড়িয়ে থাকে, জ্ঞানপ্রবাহের পথে বাধা সৃষ্টি করে, কিন্তু সফল হয় না। 

তত্ত্বকথা বাদ দিয়ে বলি, বাঙলাদেশে জীবনেও গণতন্ত্র আসবে না। এখানের লোক প্রভুবাদী, কর্তাভজা ও বীরপুজারী। এরা নিজের পিতাকে অভুক্ত রেখে জাতির পিতাকে পুষ্পমাল্যভূষিত করে। নিজের কপালের চাইতে নেতা-নেত্রী ও ক্ষমতাবানের পদমূলকে অধিক পবিত্র গণ্য করে এবং নিজের মান মর্যাদা ভুলে ঐ ললাট প্রভুর চরণে স্থাপন করতে পারলেই দো-জাহানের নেকি ও মকসুদ হাসিল হয়েছে মনে করে। 

এদেশের জন্য আলাদা কিছু ভাবতে হবে। আলাদা ধরণের গণতন্ত্র।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়