শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ০১:৩২ রাত
আপডেট : ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ০১:৪৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আরবের মরুতে রেনেসাঁর প্রতিধ্বনি

মোহাম্মাদ রুবেল

মোহাম্মাদ রুবেল: বাঙালির একটা প্রতিপক্ষ থাকতেই হবে। প্রতিপক্ষ না থাকলে তাকে জোর করে অন্য কাউকে প্রতিপক্ষ বানাতেই হবে। প্রয়োজনে নিজের নাক নিজে কেটে মরিয়ম মাওলা কিংবা ফরহাদ মজহার হওয়া চাই। প্রতিটি ক্ষেত্রের মতো খেলাধুলাও এর ব্যাতিক্রম নয়। ব্রাজিলের ফুটবল দলকে সমর্থন করতে হয় আর্জেন্টিনাকে ঘৃণা করে। অনুরূপ আর্জেন্টিনাকে ভালোবাসতে হয় ব্রাজিল সমর্থকদের অমঙ্গল কামনায়। কয়েক বছর পূর্বে ব্রাজিল - আর্জেন্টিনা দ্বন্দ্বে বুয়েটে একছাত্র আরেক ছাত্রকে মেরে ফেলেছিল প্রতিবারের মতো এবারো হয়তো ব্রাক্ষ্মণবাড়ীয়াতেও লাশ পড়বে এবং ১৪৪ ধারা জারি হবে। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপের বড় অঘটন হলো আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে সৌদি আরবের জয়। আর্জেন্টিনা ফুটবলের পরাশক্তিÑ তা নতুন করে প্রমাণের প্রয়োজন নেই। তবে সৌদির এ জয় তাৎপর্যপূর্ণ। আরব দেশগুলো তেলের কল্যাণে আকাশচুম্বি ভবন গড়ে উঠলেও তারা মধ্যযুগের অন্ধকার হতে বেরুতে পারেনি। নতুন রাজপুত্র গদীনশীল হওয়ার পর সৌদিতে অনেক পরিবর্তনের হাওয়া লেগেছে, যা পূর্বে কল্পনাও করা যেত না। খেলাধুলার পালেও পরিবর্তনের হাওয়া লক্ষ্যণীয়। আসলে রাষ্ট্র চাইলে সবই হয়। সৌদি রাজ দরবার চেয়েছে তাদের ফুটবল দল ভালো করুকÑ তাই তাদের ফুটবল দল ভালো করছে। আফগানিস্তান চাচ্ছে না তাদের ক্রিকেট দল ভালো খেলুক - তাই খেলোয়াড়দের প্রচেষ্টা ও যোগ্যতা থাকার পরও কাক্সিক্ষত সাফল্য পাচ্ছে না। সৌদি রাজদরবার চাইলে আসন্ন অলিম্পিকেও তারা ভালো করবে।
সৌদি আরবে মোল্লাতন্তের বিরুদ্ধে কতিপয় পদক্ষেপ সত্যি প্রশংসনীয়। যে রেনেসাঁ আরবে হওয়ার কথা ছিল সে রেনেসাঁ ইউরোপে হয়েছিল। আরব বিশ্বকে উন্নত বিশ্বের কাতারে দাঁড়াতে হলে সৌদি আরবকেই এগিয়ে আসতে হবে। আইনের শাসন, যুক্তিনির্ভর সমাজ, দর্শন, বিজ্ঞান ও বাকস্বাধীনতার দিকে সৌদি এগিয়ে যাবে এটা আমাদের চাওয়া। ব্যাপক হারে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করে সারা পৃথিবী থেকে মেধা জড়ো করলে বিশ্ব অন্য এক আরব দেখবে। পবিত্র মক্কা মদিনাকে সকল বিশ্বাসীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া উচিত। মহান রোম শহরের ন্যায় পবিত্র মক্কা মদিনাকেও আগত সকল মানুষকে মেহমান হিসেবে ধারণ করা উচিত। হিংসা ও ঘৃণা করে বেশি দূর এগিয়ে যাওয়া যায় না। আমরা কেন ভুলে যাই, ইসরাইলের ফুটবল টিমের অধিনায়ক একজন মুসলমান। যোগ্যতাকে মূল্যায়ন না করলে আবুল কালাম, জাকির হুসেন, বিসমিল্লাহ খাঁ, আজহার উদ্দিন সৃষ্টি হয়না। পৃথিবীর অন্যান্য মুসলিম দেশের পরিবর্তন নির্ভর করছে সৌদি আরবের সংষ্কারের উপর। একটা দেশ কতটুকু এগুবে তা নির্ভর করে সেদেশের সরকারের ওপর। জেনারেল মঈনউদ্দীনের রাজত্বে বাংলাদেশের ছাত্ররা বিনে পয়সায় পুলিশের চাকরি পেয়েছিল। বিএনপির জঙ্গি বান্ধব ছিল বিধায় সারাদেশে একযোগে বোমা ফেটে ছিলো, শেখ হাসিনা চেয়েছেন বিধায় টানা তিন মেয়াদের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। সবকিছু তো নিয়তের ওপর নির্ভর করে। আমার রাজ শক্তিগুলোর নিয়ত ছিলোনা আমাদের মঙ্গল করার, তাই আমাদের মঙ্গল হয়নি। এ প্রেক্ষাপটে একটা চুটকি দিয়ে ইতি টানছি। একদা হিসাবরক্ষকের চাকরির জন্য একজন গণিতজ্ঞ, একজন হিসাবরক্ষক ও একজন অর্থনীতিবিদ সাক্ষাৎকারে উপস্থিত হয়েছিলেন। প্রশ্নকর্তা গণিতজ্ঞের নিকট জানতে চাইলেন, দুইয়ে দুইয়ে যোগ করলে কত হয়? গণিতজ্ঞ জবাব দিলেন চার হয়। তার পর একই প্রশ্ন করা হয় হিসাবরক্ষককে। তিনি জবাব দিলেন দুইয়ে দুইয়ে যোগ করলে চার হয়, তবে চাইলে তিন- পাঁচ- পনের এদিক সেদিক করা যায়। একই প্রশ্ন অর্থনীতিবিদকে করা হলে তিনি প্রশ্নকর্তাকে চোখ টিপে বলেন, আপনি যতো চাইবেন ততো হবে স্যার। প্রশ্নকর্তাগণ খুশি হয়ে সুপারিশনামায় লিখে দিলেন- এমন গুণীলোক এই প্রতিষ্ঠানে আবশ্যক। এমন অদ্ভুত উটে চড়লে যেমন খুশি তেমন সাজার মতো অবস্থা হবে। শুধু অভাব থাকবে সেই বালকের, যে দূর থেকে দাঁড়িয়ে বলবেÑ ও রাজা তোর কাপড় কই? ফেসবুক থেকে 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়