শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৩ জুলাই, ২০২২, ০৯:৪২ রাত
আপডেট : ০৩ জুলাই, ২০২২, ০৯:৪২ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বাংলাদেশে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে কাজ করবে ইউএনডিপি ও সুইডেন

নারী

শাহীন খন্দকার: বাংলাদেশের অতি-দরিদ্র গ্রামীণ নারীদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি)’র সাথে ‘স্ট্রেনদেনিং উইমেনস এবিলিটি ফর প্রডাক্টিভ নিউ অপারচ্যুনিটিস (স্বপ্ন-২)’ প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে সুইডেন। এ বিষয়ে দু’পক্ষের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

আজ রবিবার ঢাকাস্থ ইউএনডিপি অফিসে চুক্তি স্বাক্ষর করেন ইউএনডিপি বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি ও ঢাকাস্থ সুইডেন দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স ক্রিস্টিন জোহানসন। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকাস্থ সুইডেন দূতাবাসের প্রোগ্রাম অফিসার ইকরামুল এইচ. সোহেল, ইউএনডিপি বাংলাদেশের ডেপুটি আবাসিক প্রতিনিধি ভ্যান গুয়েন, ‘স্বপ্ন’ প্রকল্পের ন্যাশনাল প্রজেক্ট ম্যানেজার কাজল চ্যাটার্জি প্রমুখ।

চুক্তি স্বাক্ষরকালে সুইডেন দূতাবাসের ক্রিস্টিন জোহানসন বলেন, সুইডিশ দূতাবাস বাংলাদেশের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে। ‘স্বপ্ন’ প্রকল্পের সাথে বাংলাদেশ সরকারের সম্পৃক্ততা এবং প্রকল্পের প্রতি নিরবচ্ছিন্ন সমর্থন আমাদের এই পর্যায়ে এগিয়ে আসার আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছে এবং উন্নয়নের লক্ষ্যে কিভাবে সম্প্রসারণ করা যেতে পারে তা দেখিয়েছে। 

ইউএনডিপি প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি বলেন, ইতোমধ্যে ‘স্বপ্ন’ প্রকল্পের মাধ্যমে গ্রামীণ নারীদের জীবনমানে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এসেছে। এই প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধির মাধ্যমে বাংলাদেশের অন্যান্য ঝুঁকিপূর্ণ জেলাগুলিতে ‘স্বপ্ন’ প্রকল্পের সুবিধা পৌছে দেওয়া সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ (বিআইডিএস)’র মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুসারে, স্থানীয় উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে দুস্থ নারীদের সক্রিয় অংশগ্রহণ এবং সামাজিক সমর্থন ও স্বীকৃতি প্রদানের ক্ষেত্রে ‘স্বপ্ন’ প্রকল্প নারীদের ক্ষমতায়নে সুদূরপ্রসারী প্রভাব রাখছে।

চুক্তি অনুযায়ী, আগামী ২০২৫ সাল পর্যন্ত প্রকল্পের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ১০টি দারিদ্র-প্রবণ এবং জলবায়ু-ঝুঁকিপূর্ণ জেলার হতদরিদ্র ও অধিকার বঞ্চিত ১০ হাজার নারীর জীবনমান উন্নয়নে কাজ করা হবে।

  • সর্বশেষ