শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৭ মে, ২০২২, ০২:২৮ রাত
আপডেট : ২৭ মে, ২০২২, ০২:২৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ইভিএম নিয়ে আবারও আলোচনা ও বিতর্ক

আব্দুল হাই সঞ্জু

আব্দুল হাই সঞ্জু: বাংলাদেশে আবারও ইভিএম নিয়ে আলোচনা ও বিতর্ক শুরু হয়েছে। ইভিএম সম্পর্কে ডক্টর জাফর ইকবাল যতোটুকু বোঝেন এবং জানেন, জো বাইডেন কিংবা বরিস জনসনও ততোটুকু জানেন না। ধরে নেওয়া যাক, ঢাকা-১ সংসদীয় আসনের তিনজন প্রার্থী ডক্টর জাফর ইকবাল, জো বাইডেন এবং বরিস জনসন। ইভিএমের নির্বাচনে জাফর ইকবাল সাহেব জিতে গেলেন এবং জো বাইডেন ১০ ভোটের ব্যবধানে দ্বিতীয় স্থান দখল করলেন। জো বাইডেন ভাবলেন, ভোট গণনায় কোথাও একটা ঘাপলা হয়েছে। তিনি ভোট পুনঃগণনার আবেদন জানালেন। পুনঃগণনার সময় দুই প্রার্থীই উপস্থিত আছেন। পুনঃগণনার পুরো প্রক্রিয়াটা জাফর ইকবাল সাহেব বুঝতে পারছেন কিন্তু জো বাইডেনের মাথার ওপর দিয়ে যাচ্ছে। আসলেই কারচুপি হয়েছে কিনা ধরতে হলে জো বাইডেনকে একদল জাফর ইকবাল সব সময় সাথে নিয়ে নির্বাচন করতে হবে। অন্যথায়, সম্ভব নয়। বাংলাদেশে এখনও জো বাইডেনের মতো লোকই বেশি। নির্বাচনে অংশগ্রহণের আগে তাঁরা একদল জাফর ইকবাল জোগাড় করার সামর্থ্যও রাখে না। তাহলে জো বাইডেনরা ইভিএমে কেন নির্বাচন করবে? 

‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ নির্মাণের আরও অসংখ্য ক্ষেত্র পড়ে আছে। অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কেনাকেও এখনও ত্রুটিমুক্ত করা যায়নি। নির্বাচন ব্যবস্থাপনায়ই ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ প্রমাণ করতে হবেÑ  এমন কোনো কথা নেই। লন্ডন। ফেসবুক থেকে 

  • সর্বশেষ