শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৭ মে, ২০২২, ০২:১৩ রাত
আপডেট : ২৭ মে, ২০২২, ০২:১৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ইভটিজিং, ধর্মভীরু ও সেক্যুলারগণ

মুশফিক ওয়াদুদ

মুশফিক ওয়াদুদ: নারীর শালীনতা নিয়ে দেশের ধর্মভীরু ও ইসলামী মূল্যবোধে উজ্জীবিত পুরুষরা যতোটা কনসার্ন, দেশে পুরুষদের শালীনতা নিয়ে সে ধরনের সচেতনতা দেখা যায় না। এ দেশে যেভাবে রাস্তায়, বাজারঘাটে ও অফিস-আদালতে নারীদের উত্যক্ত করা হয়, সেটা বহু অমুসলিম সমাজেও বিরল। রাস্তায়, বাজার ঘাটে এবং অফিস আদালতে উত্যক্ত করা, ইংগিতপূর্ণ শব্দের ব্যবহার আমাদের কালচারের অংশ হয়ে গিয়েছে। আমরা হয়তো হাসি দিয়ে উড়িয়ে দিই। আমরা মনে করি পুরুষরা এমন করবেই। সমাজে এসব আমরা মেনে নিই। কেউ কেউ আবার এর মধ্যে অংশগ্রহণ করেন। 

দেশে এতো মানুষ ইসলাম মানার পরও, শুক্রবার মসজিদে জুম্মার নামাজে মসজিদে মুসুল্লিদের ভীর থাকার পরও, রমজানে কঠোরভাবে রোজা রাখার পরও, দেশে এমন অনাচার কেন বন্ধ হয় না? আমি পাঁচবছর আমেরিকার মতো একটি সমাজে থাকার অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি, এমন অনাচার আমেরিকান সমাজে একেবারেই ঘটে না। 

সে পশ্চিমা সমাজকে আমাদের ইসলামী ভাই বোন রা অশ্লীল সমাজ বলেন, সেখানে নারীকে রাস্তাঘাটে উত্যক্ত করা বন্ধ করা গেলে, ইসলামী অনুশাসনে উদ্দীপ্ত একটি সমাজে আমরা কেন সেটা পারি না? এই বিষয় টি আমাদের ভাবা উচিত।
দেশের ইসলামী মূল্যবোধে উজ্জীবীত জনগোষ্ঠী যদি নারীরা উত্যক্ত করার এই অনাচার নিয়ে প্রতিবাদ করেন, ক্যাম্পেইন করেন, সোচ্চার হন, তবে কোনো সেক্যুলারের বিরুদ্ধে অবস্থান নেবেন? কিন্তু এই বিষয়ে ইসলামী ভাইদের আগ্রহ কম। কে কী পোশাক পরলো সেটা নিয়েই সব আগ্রহ। লেখক ও গবেষক

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়