শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৩ মে, ২০২২, ০১:২৩ রাত
আপডেট : ২৩ মে, ২০২২, ০১:২৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

দায়সারা গোছের কোনো কাজ করার চেয়ে না করাই ভালো

কামরুল আহসান

কামরুল আহসান: আরেফিন শুভ ভাইয়ের সঙ্গে এক সময় একটু ঘনিষ্ঠতা হয়েছিলো। এফডিসিতে দাঁড়িয়ে তিনি একদিন বলেছিলেন, ‘একদিন এই এফডিসি আমি শাসন করবো’। যতোটা তিনি আত্মবিশ্বাসী ছিলেন ততোটা নিজেকে গড়ে তুলতে পারেননি। তার ফিগার কমার্শিয়াল ফিল্মের জন্য ঠিক থাকলেও বঙ্গবন্ধু চরিত্রের জন্য বেমানান। তার উচিত ছিলো চরিত্রটি ফিরিয়ে দেওয়া, কিন্তু এ তো অসম্ভব ব্যাপার। জায়েদ খানকে বললে তিনিও হয়তো না করতেন না। কিন্তু হাতেপায়ে লম্বা হওয়াই তো বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করার একমাত্র মাপকাঠি না। সেই কণ্ঠস্বর হয়তো পাওয়া যাবে না, কিন্তু আঙুল নাড়ানো, মাথা নাড়ানো, চাহনি অনেক কিছুই তো নির্ভর করে বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলার জন্য। আরেফিন শুভর সেই বডিল্যাংগুয়েজই নেই। তিনি খুব ছটফটে, চঞ্চল। 

সব দোষ আসলে শ্যাম বেনেগালের। তিনি আমার একজন প্রিয় পরিচালক। অংকুর নয়, তার প্রিয় ছবি আমার ত্রিকাল। ত্রিকাল আমার মনে প্রিয় ছবির একটা। তিনি কীভাবে এবং কেন এ কাজ করলেন এটা গবেষণার বিষয়। আসলে তিনি তো ভাড়া খাটতে এসেছিলেন, তাই দায়সারা গোছের একটা কাজ করেছেন। আসলে সব দোষ শেখ হাসিনার। আমাদের জাতির পিতাকে নিয়ে ছবি বানানোর দায়িত্ব তিনি অপরকে দিবেন কেন? বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসা কি আমাদের চেয়ে অন্য কারও বেশি? এ ছবি নির্মাণের জন্য দক্ষতার চেয়ে বেশি প্রয়োজন ছিলো এ জাতি ও জাতির পিতার প্রতি ভালোবাসা। চিত্রনাট্যকার অন্তত শ্যাম বেনেগাল বাংলাদেশ থেকে নিতে পারতেন, সেটাই উচিত ছিলো।

আরেকটা কথা, অনেক দিন ধরে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আমি গবেষণা করছি। এটা আমার অফিসিয়াল কাজ। এ কাজের জন্য বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে প্রচুর বই আমি পড়েছি। সত্যি করে বলতে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভালো বই খুব কমই লেখা হয়েছে। বেশির ভাগই দায়সারা গোছের। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে এরকম প্রচুর আবর্জনা আমরা দেখেছি। যে জাতি তার জাতির পিতাকে নিয়ে এত বছরেও একটা ভালো জীবনী লিখতে পারলো না সে জাতি একটা বায়োপিক বানিয়ে ফেলবে এটা প্রায় অবিশ্বাস্য ব্যাপার। আরেকটা কথা, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে পড়াশোনার সূত্র ধরেই তাকে নিয়ে একটা বই লেখার পরিকল্পনা আমার মাথায় এসেছিলো, বইটির পরিকল্পনার কথা আমি দু’একজনকে শুনিয়েছিলাম, তারা খুব উৎসাহ দিয়েছিলেন বইটি লেখার জন্য, বড় প্রকাশনী থেকে প্রকাশের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন দু’জন। কিন্তু বইটি লিখতে গেলে আমাকে আরও প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে এবং কমপক্ষে দুবছর আর কোনো কাজ করা যাবে না, তাই আমি বইটি রচনা থেকে বিরত আছি। দায়সারা গোছের কোনো কাজ করার চেয়ে না করা ভালো এই আমার শিক্ষা। লেখক ও সাংবাদিক

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়