শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৩ মে, ২০২২, ০১:১৮ রাত
আপডেট : ২৩ মে, ২০২২, ০১:১৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

এবং ‘ইন প্রেজ অব লাভ’-আ্যালেন বাদিউ

বন্যা মির্জা

বন্যা মির্জা: ‘ইন প্রেজ অব লাভ’-আ্যালেন বাদিউ। এই বইটিতে আ্যালেন বাদিউ প্রেম নিয়ে কথা বলেছেন নিকোলাস ট্রুং এর সাথে। বাদিউ প্রেমের প্রয়োজনীয় বৈশিষ্ট্যগুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন। বাদিউ মনে করেন যে প্রেমের প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলোর মধ্যে একটি হল ঝুঁকির উপাদান, কারণ প্রেম এমন ঘটনা যার ভিতর ঝুঁকিতো আছেই অস্থিরতাও আছে। বাদিউ ট্রুং এর সাথে তার আলোচনা শুরু করেন কীভাব মিটিক (Meetic) এর মতো অনলাইন ডেটিং এজেন্সিগুলি প্রেমকে ধ্বংস করছে, কারণ তারা প্রেমের জন্য প্রয়োজনীয় ঝুঁকির উপাদানটিকে সরিয়ে দেয়। নিখুঁত ম্যাচিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে, অনলাইন ডেটিং এজেন্সিগুলো গ্রাহককে এমন একজনের সাথে মেলায় যার কাছে একটি স্থিত বুর্জোয়া সম্পর্কের জন্য প্রযোজ্য উপাদান থাকে। বুর্জোয়া সম্পর্ক কেমন তা আমি এই বই আলোচনার সময় ব্যাখ্যা করছি না। পরে সম্ভব হলে করবো। যাহোক, শত শত প্রশ্নের উত্তর দেওয়া, ছবি পোস্ট করা, সম্ভাব্য প্রেমিকদের ফটোগ্রাফ রেটিং করা এবং একজনের সবচেয়ে অন্তরঙ্গ গোপনীয়তা শেয়ার করা, অনলাইন ডেটিং কোম্পানি এই সব কিছু ব্যবহার করে একটা নিখুঁত মিল খুঁজে পেতে এবং তার গ্রাহককে একটা প্রেম-পণ্য সরবরাহ করে। একবার অনলাইন ডেটিং এজেন্সি একটি মিল খুঁজে পেলে, কেউ একটি ‘ডেটে’ যেতে পারে, প্রেমে পড়তে পারে এবং কোনো একটা নিরাপদ, বুর্জোয়া সম্পর্ক শুরু করতে পারে। 

বাদিউ অনলাইন ডেটিং এজেন্সিকে একটা সাজানো বিয়ের সাথে তুলনা করেছেন, কারণ অনলাইন ডেটিং সম্পর্ক হয় ‘সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নিরাপত্তার নামে, উন্নত চুক্তির মাধ্যমে, যার কারণে ঝুঁকি কম হয় বা থাকেনা। অনলাইন ডেটিং কোম্পানিগুলো যে প্রেমের পণ্য বিক্রি করে তা প্রকৃত প্রেম না, বা নতুন কিছুর সম্ভাবনাও সেখানে থাকেনা। এমনটা বাদিউ মনে করেন। বইটাতে বাদিউ ভালোবাসাকে এমনভাবে দেখেন যে তা খুব আইডিয়াল কিছু। আর অনলাইন ডেটিং এজেন্সিগুলো প্রেমের অস্তিত্বকে হুমকির মুখে ফেলে বলে তিনি মনে করেন। ইন প্রেজ অফ লাভের প্রধান আলোচনার বিষয় হলো প্রেমের ক্ষেত্রে একটা কাঠামোগত বিশ্লেষণ ও তার রুপান্তর। বাদিউ মনে করেন প্রেমের ঘটনা ঘটে যখন একজন অন্যের মুখোমুখি হয় ও এমনিই ঘটে, সাজানো পরিস্থিতিতে তা কখনোই হয়না। এটা এমন যে কেউ তার জন্য পরিকল্পনা করতে পারে না কারণ এটা আগে থেকে ভাবা অসম্ভব। বাদিউ মনে করেন যে প্রেমে ঝুঁকির থাকে কারণ প্রেমও প্রেমিক এক রকম হয় না। দুটি বিষয়ের মধ্যে পার্থক্য হয় বলেই প্রেম প্রক্রিয়াটিকে ঝুঁকিপূর্ণ এবং এটাতে নতুনত্ব তৈরি করার সম্ভাবনা থাকে।

আলাপে বাদিউ দাবি করেন যে সুযোগের মুখোমুখি হওয়া একটি ঘটনা সার্বজনীন হয়ে যায় যখন প্রেমিরা একে অপরকে তাদের ভালবাসা ঘোষণা করে বলে যে- ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’ বা তেমন কিছু বলে। একজন নিজেকে অন্যের কাছে সম্পূর্ণরূপে অরক্ষিত করে তোলে এবং সবকিছু হারানোর জন্য প্রস্তুত থাকে। আবার শ্রেণিগত অবস্থান কীভাবে প্রেমের অভিজ্ঞতাকে প্রভাবিত করে, যেমন একটি শ্রমজীবী দম্পতির জন্য, তাদের ভালবাসা পুঁজিবাদের বিরুদ্ধে তাদের সংগ্রামে তাদের যৌথ সংহতি। প্রেমের ঘটনা মধ্যবিত্তের মধ্যে ঘটার সম্ভাবনা বেশি। সারাদিন কাজ করে এমন দু’জন শ্রমিকের ছুটি নেওয়ার সময় নেই। তাদের ভালবাসা পুঁজিবাদের তৈরি সম্পর্ক। বই পড়া শেষ হয়নি। আপাতত এইটুকু। বাকীটা বই শেষ হলে, তবে শেষ করে নাও লিখতে পারি। জটিল বিষয় লেখার চেয়ে পড়া ভালো। আর খুব গুছিয়ে লেখা হলো তাও না। তবে যে কেউ চাইলেই পড়তে পারেন। লেখক: অভিনেত্রী। ফেসবুক থেকে 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়