শিরোনাম

প্রকাশিত : ২১ মে, ২০২২, ০২:৪৮ রাত
আপডেট : ২১ মে, ২০২২, ০২:৪৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আনু মুহাম্মদ:

আপনারা জেনেশুনে দেশের মুখে,  মানুষের মুখে বিষ ঢেলে দিচ্ছেন!

আনু মুহাম্মদ

রূপপুর, রামপাল, পায়রা, মাতারবাড়ী, বাঁশখালী প্রকল্প দেশ ও মানুষসহ সর্বপ্রাণের জন্য বিষ, বহুবছরের জন্য অর্থনৈতিক বোঝা, জীবন- জীবিকা ও নিরাপত্তার ওপর দানবীয় আক্রমণ। যে পরিমাণ বিদ্যুতের নামে এগুলো করা হচ্ছে তা করা সম্ভব আরও অনেক কম খরচে এবং আরও গুরুত্বপূর্ণ যে করা সম্ভব সুন্দরবনসহ উপকূল ছারখার না করে এবং দেশকে বিপদগ্রস্ত না করে। আপনারা ইচ্ছা করে গ্যাস অনুসন্ধান বন্ধ রেখেছেন এসব কয়লা আর পারমাণবিক প্রকল্প জায়েজ করার জন্য, ব্যয়বহুল এলএনজি প্রকল্প নেবার যুক্তি দাঁড় করানোর জন্য। আপনাদের এসব কাজের জন্যই বিদ্যুতের দাম ক্রমাগত বাড়ছে, আরও বাড়তেই থাকবে। 

আপনারা ঢাকার সাধারণ বর্জ্য ঠিক করতে পারেন না, আপনাদের চোখের সামনে বুড়িগঙ্গা নর্দমা হয়ে যায় আর আমাদের বোঝান যে, আপনারা পারমাণবিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিখুঁত ভাবে করবেন, কয়লা বিদ্যুতের জন্য সুন্দরবনসহ কোথাও কোনো ক্ষতি হবে না, আরও বড় বড় আম হবে! কেন করছেন এগুলো? লাভ কার? রূপপুর প্রকল্পে লাভ রাশিয়ান রোসাটম কোম্পানির, তাদের ঋণ ব্যবসায় লাভ। আর লাভ ভারতের, যারা এই কেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা/পরিচালনার দায়িত্ব নিয়েছে।

রামপালে লাভ ভারতের এনটিপিসির, ভারতের ভেল কোম্পানির, ভারতের এক্সিম ব্যাংক ও বিভিন্ন ঠিকাদারের। পায়রা বাঁশখালীতে লাভ বিভিন্ন চীনা কোম্পানির, লাভ এস. আলম গ্রুপসহ তাদের দেশি পার্টনারদের। মাতারবাড়ী প্রকল্পে লাভ জাপানী কোম্পানি ও সহযোগীদের। যারা এসব প্রকল্পে সিমেন্ট, রড বিক্রি করবে বলে দেশে বড় বড় বিজ্ঞাপন দিচ্ছে তাদেরও মহানন্দ। বিরাট লাভ অবশ্যই কমিশনভোগীদের! আর দেশ ও মানুষের জন্য পুরোটাই অচিন্তনীয় বোঝা আর বোঝা, বিপদ আর বিপদ। আপনারা জেনে শুনে দেশের মুখে, মানুষের মুখে বিষ ঢেলে দিচ্ছেন! ফেসবুক থেকে

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়