শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৫ মে, ২০২২, ০১:৫০ রাত
আপডেট : ১৫ মে, ২০২২, ০১:৫০ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মঞ্জুরে খোদা টরিক: ইউরোপের গ্যাস সংকট ও ইউক্রেনের ঋণের জাল

মঞ্জুরে খোদা টরিক

মঞ্জুরে খোদা টরিক: মার্কিন ফাইনানশিয়াল টাইমস -এ যুদ্ধ পরবর্তি পরিস্থিতিতে ‘ইউক্রেনের ঋণের পরিণতি (The fate of Ukraine’s debts)’ ও ঋণের কি বন্দোবস্ত হতে পারে তার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সেখানে যুদ্ধের পর বা যুদ্ধে রাশিয়ার সাথে ইউক্রেনের কি ধরণের সমঝোতা-বোঝাপড়া হবে, তার উপর ভিত্তি করে ধারণামুলক বিশ্লেষনটি তৈরি করা হয়। প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয় ২০২২ এর ১৪ মার্চ। মানে যুদ্ধের শুরুর ৩ সপ্তাহের মাথায়। সেখানে তাদের ঋণের পরিমান উল্লেখ করা হয়ে ৯৪.৭ বিলিয়ন ডলার। এ সপ্তাহে মার্কিন কংগ্রেস ইউক্রেনকে ৪০ বিলিয়ন ডলার ঋণপ্রদান করেছেন যা এখন সিনেটের অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। বিগত ঋণের সাথে এই নতুন ঋণ যোগ করলে তাদের ঋণের পরিমান দাড়াবে ১৩৫ বিলিয়ন ডলার। যুদ্ধে হয়তো এই ঋণের পরিমান আরও অনেক বাড়বে। শ্রীলঙ্কার যে বর্তমান অর্থনৈতিক সংকট ও রাজনৈতিক প্রলয় চলছে তা তাদের সরকারের বৈদেশিক ঋণের ৪৫ বিলিয়ন ডলারের ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে না পারা। ইউক্রেনের অর্থনীতির অবস্থা অবশ্যই শ্রীলঙ্কার চেয়ে উন্নত ছিল (শ্রীলঙ্কার ভালই ছিল)। কিন্তু যুদ্ধে ইউক্রেনের যে ক্ষতি-ধ্বংস-বিপর্যয় হয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে অনেক সময় লাগবে। তারপরে এই বিশাল ঋণের বোঝ দেশটির জন্য এক বিশাল চাপ হবে।  

যে কারণে এ নোট লিখছি, ইউক্রেন-ইউরোপের দেশগুলোতে রাশিয়ার তেল সরবরাহের লাইন কেটে দিয়েছে। রাশিয়া তাদের বিকল্প পথের কথাও ইতোমধ্যে ঘোষণা করেছে। তেল সরবরাহের এই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় মূলত সংকটে পড়বে ইউরোপে- ইউক্রেনের মিত্র দেশগুলোই। এতে ইউক্রেনের দু’টি ক্ষতি হবে এক) তারা রাশিয়ার রেমিটেন্স হারাবে আর দুই এতে তাদের মিত্ররাই ক্ষতির স্বীকার হবে। ইতোমধ্যে ইউরোপের দেশগুলো গ্যাস সংকট ও গ্যাসের বাড়তি মূল্যের কারণে ভুগছে। আর সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়- প্রথমত, এই যুদ্ধের কারণে তাদের উৎপাদন ব্যাপকভাবে ব্যহত হওয়ায় তারা পূর্বের ন্যায় বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে ব্যর্থ হবে। দ্বিতীয়ত, ইউক্রেনের বাণিজ্যের প্রধান বন্দর মারিওপোল রাশিয়ার দখলে থাকার কারণে তাদের বৈদেশিক বাণিজ্য বড় সংকটে পড়বে। ইউক্রেনের মধ্যে দিয়ে যাওয়া রাশিয়ার তেলের লাইন বিচ্ছিন্নের সিদ্ধান্ত ইউক্রেন নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা যতটা না ভঙ্গ করেছে, তারচেয়ে তার নিজের ও পরম বন্ধুদের ক্ষতিই করেছে। মার্কিনের ঋণ, সাহায্য ও পরামর্শ বেশি করে নিতে থাকুন। মার্কিনের মত বন্ধু থাকলে- তার আর রাশিয়ার মত শত্রুর দরকার নেই। লেখক ও গবেষক

  • সর্বশেষ