শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৪ মে, ২০২২, ০২:৩২ রাত
আপডেট : ১৪ মে, ২০২২, ১০:৩১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আর রাজী:

প্রেমের সংকট ভালবাসায়, ভালবাসার সংকট প্রেমে পূরণ করা যায় না

আর রাজী

আর রাজী: মানব-সভ্যতার এই দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় কিছু কার্যকারণ-ফলাফল স্বতঃসিদ্ধ হয়ে গেছে। এমনই একটা স্বতঃসিদ্ধ হচ্ছে, পরিণতির চূড়ান্ত বিবেচনায় রাজনৈতিক সমস্যার কোনো অর্থনৈতিক, আধ্যাত্মিক, নৈতিক বা অন্য কোনো সমাধান নাই। যেমন অর্থনৈতিক সমস্যারও রাজনৈতিক সমাধান হয় না। এমন কি প্রেমের সমস্যা ভালবাসা আর ভালবাসার সমস্যা প্রেম দিয়ে মিটানো যায় না। বাংলাদেশের যে সঙ্কট, কোনো রকম দ্বিধা ছাড়াই নিশ্চিৎ করা যায় যে তা, রাজনৈতিক সংকট, আরও সুনির্দিষ্ট করে বললে, ক্ষমতার বৈধতার সঙ্কট।

ক্ষমতার বৈধতার সঙ্কট ওরফে রাজনৈতিক সংকটের সমাধান যদি রাজনৈতিকভাবেই না মেটানো হয়, যদি ক্ষমতার বৈধতা প্রামাণ্য করা না যায়, তাহলে যত দিন যাবে ঘূর্ণিঝড়ের মতো সেই সঙ্কট শক্তি অর্জন করতে থাকবে এবং একদিন না একদিন তা আঘাত হানবেই। কোনো চালাকি, কোনো মাথা পিছু আয় তখন রাজনীতিক আর রাজনীতিকদের দোসরদের পাছাপিছু পদাঘাতকে রুখতে পারবে না। যত বিলম্ব হবে এই রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসনে ঠিক ততো শক্তিতে এই সঙ্কট লণ্ডভণ্ড করে দেবে দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা-সমৃদ্ধি।

আমি জানি, এই কথা শিক্ষিত-বাঙালি খুব ভাল করেই জানে কিন্তু নানান শয়তানি চিন্তা, কখনো মোহ, কখনো মায়া এই সত্য উচ্চারণ থেকে তাদের দূরে রাখে। সব জেনেও তারা বলতে থাকে, বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হবে না। ভাইলোগ, বাংলাদেশে যা চলতেছে তা চলতে থাকলে আজ হোক কাল হোক, এই দেশের পরিণতি শ্রীলঙ্কার চেয়ে ভয়াবহ হতে বাধ্য। খেয়াল কইরা দেখেন, আগুন একবার লাগলে তা নিভানোর কেউ নাই, কিছু নাই এই দেশে। রাজনীতি ধর্ম সংস্কৃতি আইন শিক্ষা ব্যবসা-বাণিজ্য কোথাও, কোথাও একাধিক তো দূরের কথা, এমন একজন মানুষ বা একটা প্রতিষ্ঠানও আমাদের নাই, যার বা যাদের কথায় বা কাজে মানুষ আস্থা রাখতে পারে। গত একশ বছরের ইতিহাসে এমন শূন্যতা বাংলাদেশে ছিল না। এ এমন এক জাহেলিয়াতি সময় যা সব নষ্ট-ধ্বংস কইরা শক্তিসঞ্চয় করতে আছে। এখনও যদি আমরা হুঁশে না ফিরি, তাইলে এই দেশে কিয়ামত নাইমা আসা কেবল সময়ের ব্যাপার। 

লেখক: সহকারী অধ্যাপক, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় 

  • সর্বশেষ