শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৬ আগস্ট, ২০২২, ০৮:২৩ রাত
আপডেট : ০৬ আগস্ট, ২০২২, ০৮:২৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

পোশাক ও মূলধনী যন্ত্রপাতি খাতের আমদানি বৈদেশিক বাণিজ্যের ভারসাম্যকে ধসিয়ে দিয়েছে

রুমিন ফারহানা

রুমিন ফারহানা, ফেসবুক থেকে: ব্যালান্স অব পেমেন্ট ও আমদানি-রফতানির পরিসংখ্যান তৈরির সঙ্গে সম্পৃক্ত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা বণিক বার্তাকে বলেন, দেশের রেকর্ড পণ্য আমদানিতে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব যৎসামান্য। খাদ্যপণ্য ও জ্বালানি খাতে আমাদের যে পরিমাণ ব্যয় বেড়েছে, সেটি উল্লেখ করার মতো নয়। ৮৯ বিলিয়ন ডলারের আমদানিতে মূল ভূমিকা রেখেছে বস্ত্র ও তৈরি পোশাক খাত এবং মূলধনি যন্ত্রপাতি আমদানি। এ দুই খাতে আমদানির প্রভাব দেশের বৈদেশিক বাণিজ্যের ভারসাম্যকে ধসিয়ে দিয়েছে।

গত অর্থবছরে দেশের তৈরি পোশাক খাতের রফতানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। অথচ একই সময়ে দেশের প্রধান রফতানি খাতটির কাঁচামাল আমদানি বেড়েছে ৫৮ শতাংশের বেশি। তৈরি পোশাক খাতের আমদানি ও রফতানির এ ব্যবধানকে স্বাভাবিক হিসেবে দেখছেন না বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, দেশ থেকে অর্থ পাচারের প্রধান উৎস হলো বৈদেশিক বাণিজ্য। আমদানি পণ্যের মূল্য বেশি দেখিয়ে কিংবা রফতানি পণ্যের মূল্য কম দেখিয়ে দেশ থেকে অর্থ পাচার করা হয়। ২০২১-২২ অর্থবছরে তৈরি পোশাক খাতের কাঁচামাল, অন্যান্য শিল্পের ইন্টারমিডিয়ারি পণ্য এবং মূলধনি যন্ত্রপাতি আমদানির যে ব্যয় দেখা যাচ্ছে, তার প্রতিচ্ছবি অর্থনীতিতে দেখা যায়নি।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়