শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৬ জুলাই, ২০২২, ১২:৩৮ রাত
আপডেট : ০৬ জুলাই, ২০২২, ১২:৩৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আমাদের সমাজ বাঁচতে শেখায় না

আমিনুল ইসলাম

আমিনুল ইসলাম: প্রেসক্লাব এলাকায় ভদ্রলোক নিজের গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করলেন শত মানুষের সামনেই। ঠিক এক মাস আগে লেখা তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটা আমি পড়েছি। হেনোলাক্সের মালিক এবং তার বউ কিভাবে ফুঁসলিয়ে তার কাছ থেকে এক কোটি ২৬ লাখ টাকা নিয়েছে; তার পুরো বিবরণ তিনি দিয়েছেন। কিন্তু টাকা পাবার পর এদের আচরণ বদলাতে থাকে। টাকা ফেরত দেওয়া তো দূরে থাক, ভদ্রলোকের সাথে কথা বলাই বন্ধ করে দেয় এরা। 

তিনি এরপর থানায় মামলা করেছেন। মানববন্ধন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনও করেছেন। একটা আস্ত ফেসবুক পোস্ট লিখে সকল কিছু জানিয়েছেনও। না, কিছুই হয়নি এতে। শেষমেশ নিজের গায়ে আগুন দিয়েই তাকে মরতে হলো। এখন কি হবে জানেন? এখন দেখবেন হেনোলাক্সের মালিক এবং তার বউকে পুলিশ ধরবে। পত্রিকাগুলোও এই নিয়ে সংবাদ করবে। আরও অনেক কিছুই হবে। কারণ তিনি মরে গিয়েছেন গায়ে আগুন লাগিয়ে। এতে পুলিশেরও কিছু ফায়দা হবে। সাংবাদিকদেরও হবে। তিনি যদি বেঁচে থাকতেন; তাহলে অবশ্য কিছুই হতো না। মরে যাবার পরই তিনি সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন। বেঁচে থাকতে অবশ্য সংবাদ সম্মেলন করেও কোনো ফায়দা হয়নি।  এই নিয়ে তেমন কোনো রিপোর্ট হয়নি। পুলিশও কিছু করেনি। 

আমি আগেও বলেছি। আবারও বলি, আমাদের সমাজ বাঁচতে শেখায় না। আমাদের সমাজ মরতে শেখায়। বিশ^াস করুন, এই দেশে মৃত মানুষের কিছুটা হলেও মূল্য আছে। জীবিত মানুষের সেই অর্থে কোনো মূল্য নেই। ফেসবুক থেকে 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়