শিরোনাম
◈ বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে আলোকসজ্জায় নিষেধাজ্ঞা ◈ ৫ দিনে রেমিটেন্স এলো ৫ হাজার কোটি টাকা ◈ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দিলেন বিদ্যুৎপ্রতিমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধু কূটনৈতিক উৎকর্ষ পদক পেলেন লায়লা হোসেন ও ইতো নাওকি ◈ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আরো সক্রিয় হতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ◈ লজ্জা থাকলে বিএনপি লোডশেডিং নিয়ে বলতো না: ওবায়দুল কাদের ◈ কুষ্টিয়া নিখোঁজের ৫ দিন পর  আমাদের নতুন সময়ের সাংবাদিক রুবেলের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা ◈ দলীয় প্রধানের পদ থেকে বরিস জনসনের পদত্যাগ, প্রধানমন্ত্রীত্বও ছাড়বেন ◈ সেপ্টেম্বরের আগে বিদ্যুৎ সংকট কাটছে না, সকলকে সাশ্রয়ী হতে হবে ◈ ২৭টি গরু নিয়ে ডুবল ট্রলার, ৬ গরুর মৃত্যু

প্রকাশিত : ২৭ মে, ২০২২, ০২:০৮ দুপুর
আপডেট : ২৭ মে, ২০২২, ০৩:৩৯ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ঢাবি ক্যাম্পাসে লাশ ফেলার ষড়যন্ত্রে বিএনপি

ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : [২] পদ্মা সেতু উদ্বোধনের আগে বিএনপি দেশকে অস্থিতিশীল করতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ক্যাম্পাসে লাশ ফেলার ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার নিজ বাসভবনে ব্রিফিংকালে দলটির বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেন তিনি। 

[৩] তিনি বলেন, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্ণফুলী টানেলসহ মেগা প্রকল্পগুলোর কাজ সম্পূর্ন দেখে বিএনপি নেতাদের মাথা নষ্ট হয়ে গেছে। পলিটিক্যাল হ্যালুসিনেশনে ভুগতে থাকা বিএনপি মহাসচিব একের পর এক মিথ্যাচার করেই যাচ্ছেন। 

[৪] পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ দেখে ‘বিএনপি অন্তর জ্বালায় ভুগছে’ এ সত্য স্বীকার করে নেওয়ায় দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ধন্যবাদ জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

[৫] আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরো বলেন, বিএনপি মহাসচিব পদ্মা সেতু নিয়ে বারবার লুটপাটের কাল্পনিক অভিযোগ করে যাচ্ছেন। এটা মির্জা ফখরুলের বিকৃত মস্তিষ্কের নতুন আবিষ্কার। শতভাগ স্বচ্ছতা নিয়েই পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

[৬] ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মা সেতুতে দুর্নীতির কাল্পনিক অভিযোগ করছেন বিএনপি মহাসচিব । সুনির্দিষ্ট তথ্য দিয়ে যদি তা প্রমাণ করতে না পারেন, তাহলে মেগা প্রকল্প নিয়ে মেগা মিথ্যাচারের জন্য মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ক্ষমা চাইতে হবে।

[৭] তিনি উল্লেখ করেন, বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির অপবাদ দিয়ে পদ্মা সেতু প্রকল্প থেকে সরে গিয়েছিল। এরপর বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা নিজেদের অর্থায়নে সেতু নির্মাণের সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। পদ্মা সেতুর দুর্নীতি নিয়ে যে অভিযোগ বিশ্বব্যাংক করেছিল, পরবর্তীতে কানাডার আদালত তা নাকচ করে বাংলাদেশকে নির্দোষ রায় দিয়েছেন। তারপর বিশ্বব্যাংকই স্বীকার করছে পদ্মা সেতু প্রকল্প থেকে সরে গিয়ে তারা ভুল করেছে। এরপরও কী বিএনপি মহাসচিব পদ্মা সেতুর স্বচ্ছতা নিয়ে মিথ্যাচার করবেন?

  • সর্বশেষ