শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৮ মে, ২০২২, ০৩:৪৬ রাত
আপডেট : ১৮ মে, ২০২২, ১০:৪০ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম

ঢাকায় আসা ৭০ শতাংশ মানুষই জলবায়ু অভিবাসী

মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

নিউজ ডেস্ক: প্রতিদিন প্রায় দুই হাজার লোক ঢাকা শহরে আসে। তাদের মধ্যে ৭০ শতাংশ জলবায়ু অভিবাসী। এতে শহরের পরিবেশ ও পরিষেবা প্রদানে চাপ সৃষ্টি হচ্ছে। নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিতকরণে আন্তর্জাতিক অভিবাসন রিভিউ ফোরামের উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে আয়োজিত বৈঠকে যোগ দিয়ে এ কথা বলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (১৭ মে) বিশ্ব মেয়রদের মেয়র মাইগ্রেশন কাউন্সিল (এমএমসি) লিডারশিপ বৈঠকে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশসহ বিশ্বের সাতটি শহরের মেয়র। নিউইয়র্ক সময় সকাল ১০টায় বৈঠকে অভিবাসীদের সমস্যায় করণীয় নিয়ে গ্রিন সেক্টর গড়ার প্রতি জোর দেন মেয়র আতিক।

তিনি বলেন, ‘দিনে দুই হাজার লোক ঢাকায় আসে। নিরাপদ খাবার পানির সংকট, ঘূর্ণিঝড়, আকস্মিক বন্যার শিকার, নদী ভাঙন, কৃষি জমি হারানো মানুষের সংখ্যা বেশি। অভিবাসীদের এমন আগমন আমাদের পরিবেশ ও পরিষেবা প্রদানের সক্ষমতার ওপর অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি করে। তবে এটি অর্থনৈতিক উন্নয়নের একটি সুযোগ তৈরি করে। যদি কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা যায়, বিশেষ করে গ্রিন সেক্টরে।’

আতিকুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের সভাপতি এবং গ্লাসগোতে কোপ-২৬-এ জলবায়ু উদ্বাস্তু এবং জলবায়ু অভিবাসীদের জন্য জলবায়ু ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছেন। ঢাকা উত্তর সিটিও এক্ষেত্রে কাজ করে যাচ্ছে।

মেয়র বলেন, আমরা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের সভাপতিকে ৭০টি স্থানীয় সরকারের প্রতিশ্রুতি প্রদান করছি, যা অভিবাসীদের জীবনে পরিবর্তন আনবে এবং বিশ্বকে প্রতিশ্রুতি পূরণের পথে রাখবে।

তিনি বলেন, ঢাকা উত্তরের মেয়র হিসেবে আমার আইএমআরএফ অঙ্গীকার হলো, শহুরে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাস্তুচ্যুতরা রয়েছে। এটি তাদের স্বাস্থ্যের ওপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলবে। কিন্তু আমার এই প্রতিশ্রুতির সঙ্গে আইএমআরএফ দেশগুলোর কাছে আমাদের প্রস্তাবনা হলো- জাতীয় জলবায়ু, অভিবাসন এবং উন্নয়ন নীতিমালাগুলো শহরে জড়িত করা। যেমন- এনডিসি এবং অভিবাসন এবং স্থানান্তরিত জনগণের জন্য জাতীয় কৌশল প্রনয়ণ।

অভিবাসী এবং উদ্বাস্তুদের জন্য গ্লোবাল সিটি ফান্ড গড়ে তোলা, যাতে সিটি গভর্নমেন্ট সরাসরি অর্থায়ন প্রক্রিয়া তৈরি করতে এবং বিনিয়োগ করতে পারে। বিশ্বব্যাপী জলবায়ু অর্থের প্রবাহের অন্তত ৫০ শতাংশ অভিযোজন অর্থায়নের জন্য বরাদ্দ এবং এই অর্থ যেন ক্ষতিগ্রস্ত দেশের সংকট নিরসনে ব্যবহার করা হয়।

এ সময় ডিএনসিসি মেয়র ইউএন নেটওয়ার্ক অন মাইগ্রেশনকে শহুরে জলবায়ু অভিবাসন দ্বারা সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার আহ্বান জানান। একই সঙ্গে সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে ওই আহ্বানে সাড়া দিতে আমন্ত্রণ জানান।

মঙ্গলবারের বৈঠকে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলামকে ‘লিডারশিপ অব এমএমসি’-তে আগামী ৩ বছরের জন্য অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়