শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৩ অক্টোবর, ২০২২, ০৫:৫০ বিকাল
আপডেট : ০৪ অক্টোবর, ২০২২, ০২:১৫ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বাংলাদেশকে ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দেবে দক্ষিণ কেরিয়া: লি জ্যাং কিউন

লি জ্যাং কিউন

তরিকুল ইসলাম: বাংলাদেশ ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে ক্রমশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশটি আগামী পাঁচ বছরের জন্য বাংলাদেশকে ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দেবে। যা প্রাথমিকভাবে সম্মত হওয়া ৭০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও তিনগুণ বেশি। এছাড়া সরকারি ও বেসরকারি উন্নয়ন অংশীদার হিসেবেও নতুন নতুন খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী দেশটি। 

ঢাকায় নিযুক্ত কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং কিউন এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, ২০২২ সালে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ২.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। ১৯৭৩ সালে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পর থেকে কোরিয়া ও বাংলাদেশ প্রতিটি ক্ষেত্রে চমৎকার সম্পর্ক উপভোগ করেছে। আমরা চমৎকার সম্পর্ক গড়ে তুলেছি এবং এখনও প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। কোরিয়া বর্তমানে বাংলাদেশে পঞ্চম বৃহত্তম এফডিআই বিনিয়োগকারী হলেও বিনিয়োগের ৭০ শতাংশের বেশি রয়েছে বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্প খাতে। 

লি জ্যাং কিউন বলেন, স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স রেফ্রিজারেটর, এয়ার কন্ডিশনার, ওয়াশিং মেশিন থেকে শুরু করে টেলিভিশন এবং মোবাইল ফোনের বেশিরভাগ গ্যাজেট স্থানীয়ভাবে উৎপাদন হচ্ছে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ বাংলাদেশে হুন্ডাই গাড়ির অ্যাসেম্বল করা হবে। এছাড়া ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণ করছে স্যামসাং সিঅ্যান্ডটি।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরামর্শ ও পরিচালনার দায়িত্বে পালন করছে কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে কর্পোরেশন (কেইসি)। কোরিয়ান সরকারের সহায়তায় নির্মিত হয়েছে বিএসএমএমইউ সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতাল। প্রতি বছর কোরিয়ায় যাওয়া বাংলাদেশির সংখ্যা দুই হাজার থেকে চার হাজারে উন্নীত হয়েছে। ২০২০/২১ অর্থবছরে তাদের পাঠানো রেমিট্যান্স ২০৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে।

বাংলাদেশের তরুণ-তরুণীদের মধ্যে কোরিয়ান ভাষা ও সংস্কৃতির প্রসার ঘটেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি এ বছর ইন্ডিপেন্ডেন্স ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (আইইউবি) এবং আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশে (এআইইউবি) ভাষা প্রোগ্রাম চালু করেছে। ঢাকায় কোরিয়ান দূতাবাস তরুণদের জন্য স্টার্ট-আপ কর্মসূচিতে বিনিয়োগ করছে। 

২০২৩ সালে আমাদের সুবর্ণ জয়ন্তী হবে কোরিয়া-বাংলাদেশ বন্ধুত্ব ও অংশীদারিত্বের মাইলফলকের বছর। গত পাঁচ দশক ধরে আমরা আন্তরিকভাবে যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তুলেছি আগামীতে সেটি আরো শক্তিশালী এবং উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য এক সঙ্গে সাহসী পদক্ষেপ নেব।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়