শিরোনাম
◈ দুদিনে বাতিল হওয়া সৌদিগামী ৪টি ফ্লাইটের প্রায় ১২শ যাত্রীর ‘ভিসার মেয়াদ শেষ হলেও সমস্যা নেই : প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ◈ নাশকতাকারীদের ধরিয়ে দিলে পুরষ্কার ঘোষণা পুলিশের, দেশজুড়ে ‘চিরুনি অভিযান ◈ কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ৮ দাবি, যা বললেন আইনমন্ত্রী ( ভিডিও ) ◈ এখনই কারফিউ তুলে নেয়ার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ আজ রাতের মধ্যেই ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট চালুর চেষ্টা চলছে: জুনাইদ আহমেদ পলক ◈ হুতি-ইসরাইল মধ্যে উত্তেজনা, মধ্যপ্রাচ্যে বড় যুদ্ধের শঙ্কা ◈ চলমান সহিংসতা ক্ষতির মুখে রফতানি আয়, যা বললেন অর্থনীতিবিদরা ◈ দুর্যোগ ভবনে চালানো তাণ্ডবে ‘পুড়েছে ৫৩ গাড়িসহ মূল্যবান জিনিসপত্র’ ◈ প্রেসিডেন্ট পদের দৌড় থেকে সরে দাঁড়ালেন বাইডেন, কামালা হ্যারিসের নাম প্রস্তাব ◈ বাড়তে পারে সাধারণ ছুটি, তৃতীয় দিনের মত কারফিউ চলছে

প্রকাশিত : ০৬ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০১:২৪ দুপুর
আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০৩:৫৪ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মদ, মিষ্টি পানীয়র উপর বেশি কর চায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ইমরুল শাহেদ: [২] সব দেশের করের হার পরীক্ষা করার পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মঙ্গলবার জানিয়েছে, এই অস্বাস্থ্যকর পানীয়র উপর করের হার খুবই কম। কিছু ইউরোপীয় দেশে ওয়াইনের উপর তো কোনো করই নেই। সূত্র: ডয়েচে ভেলে

[৩] কর বসালে মৃত্যুর সংখ্যা কমবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব হলো, মদ্যপানের কারণে প্রতি বছর ২৬ লাখ মানুষ এবং অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে ৮০ লাখ মানুষ প্রতি বছর মারা যান। বেশি কর বসালে মানুষ এই সব খাদ্য ও পানীয় খাওয়া কম করে দেবে। তাছাড়া স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া নিয়েও প্রচার করতে হবে, মানুষকে সচেতন করতে হবে।

[৪] বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হেলথ প্রমোশন ডিরেক্টর বলেছেন, ‘অস্বাস্থ্যকর খাদ্য-পানীয়র উপর কর বসালে মানুষ স্বাস্থ্য কর খাবার খায়। এর একটা ইতিবাচক প্রভাব সমাজে পড়ে। অসুখ কম হয়। সরকারের রাজস্ব বাড়ে। তা দিয়ে মানুষকে পরিষেবা দেয়া সম্ভব হয়। অ্যালকোহলের উপর বেশি কর বসালে সহিংসতা ও রাস্তায় দুর্ঘটনার সংখ্যাও কমবে।

[৫] বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ১৯৪টি দেশের মধ্যে ১০৮টি দেশ চিনি দিয়ে মিষ্টি করা পানীয়র উপর কিছু কর বসিয়েছে। কিন্তু অনেকে আবার পানীয় জলের উপরেও কর বসিয়েছে, যা তারা একেবারেই অনুমোদন করেন না।

[৬] তাদের মতে, মদের একটা ন্যূনতম দাম ঠিক করে দিতে হবে এবং কর বসাতে হবে। তাহলে মদ খাওয়া কমবে, মদের সঙ্গে জড়িত মৃত্যুর সংখ্যা কমবে, সহিংসতা ও ট্রাফিক সংক্রান্ত সমস্যা কমবে। সমীক্ষায় দেখা গেছে, যারা খুব বেশি পান করেন, তাদের সস্তা মদ খাওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহকারী ডিজি জানিয়েছেন, যত দিন যাচ্ছে, ততই মানুষের মদ কিনে খাওয়ার সামর্থ বাড়ছে। এরজন্যই কর বসানো এবং দাম নির্ধারণ করাটা খুবই জরুরি।

আইএস/এইচএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়