শিরোনাম
◈ মিয়ানমার সীমান্তে আগের পরিস্থিতি আর সৃষ্টি হবে না: প্রত্যাশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর  ◈ জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভেদ নাই: রওশন এরশাদ ◈ সাংবাদিকরা চাষাবাদ করছেন কি না, দেখার দায়িত্ব পেলেন শাইখ সিরাজ ◈ কারামুক্ত বিএনপি নেতা আলালের স্বাস্থ্যের খোঁজ নিলেন মঈন খান ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে: প্রধানমন্ত্রী ◈ শুক্রবার বিশ্বে বাতাস দূষণের তালিকায় ঢাকা ছিল সপ্তম ◈ মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে নির্বাচন  নিয়ে কেউ প্রশ্ন করেনি: প্রধানমন্ত্রী ◈ লোহিত সাগরে হামলায় ব্যবহার করা হবে সাবমেরিন অস্ত্র: হুথি নেতা  ◈ ২১ বলে সেঞ্চুরি করে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন আসজাদ ◈ যারা সরকার উৎখাত করতে চায়, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি তাদেরই কারসাজি: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৯ নভেম্বর, ২০২৩, ০১:০৭ দুপুর
আপডেট : ২৯ নভেম্বর, ২০২৩, ০৭:৩৫ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভূগর্ভস্থ গোপন হাসপাতালে হাজার হাজার রোগীর জীবন বাঁচান সিরীয় ডাক্তার

সাজ্জাদুল ইসলাম : [২] সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ চলার সময় দেশটির পূর্বাঞ্চলের পূর্ব গাওতায় ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞ চালায় প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের বাহিনী। সে ভয়াবহ স্মৃতিচারণ প্রসঙ্গে সুড়ঙ্গের মধ্যে স্থাপিত সেই হাসপাতালের কথা তুলে ধরেন ডাক্তার আমানি বালাউর । সূত্র : আনাদোলু 

[৩] রাজধানী দামেস্কের অদূরে গাওতা শহরের উপকন্ঠে মাটির নীচে এ হাসপাতালটি স্থাপন করেন তিনি। দামেস্কের উপকন্ঠে জন্মগ্রহণকারী বালাউরের বয়স এখন ৩৬ বছর। গৃহযুদ্ধের সময় গাওতাকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছিল অনেক বছর। সেকারণে টানেল বা সুড়ঙ্গ নির্মাণের ধারণা সেখানে দানা বেধেছিল লোকদের মাঝে। 

[৪] ডাক্তার বালাউর বলেন, আপনারা জানেন যে, আমরা সেখানে ৬ বছর ধরে অবরুদ্ধ অবস্থায় ছিলাম। সিরিয়ার সরকার আমাদের  ওখানে খাবার ও ওষুধসহ সব কিছুর প্রবেশের পথ বন্ধ করে দিয়েছিল। সে কারণে পূর্ব গোওতার জনগণ জীবন বাঁচাতে সেখানে নিত্যপণ্য সামগ্রী চোরইপথে আনার জন্য টানেল নির্মান করেন। 

[৫] ডাক্তার বালাউর বলেন, আমরা বাইরে যাতাযাত করার জন্যও এ টানেল ব্যবহার করতাম। কারণ সে সময় সেখানে ব্যাপক বোমা হামলা চালাচ্ছিল বাশার বাহিনী। অনেক সময় বিমান হামলা চালানো হতো এবং হেলিকপ্টার চক্র দিতো, তাই ভূপষ্ঠের ওপর দিয়ে যাতায়াত করা সম্ভব ছিল না। তাই আমরা ভুগর্ভে টানেলের মধ্যে জীবন চালানোর কৌশল অবলম্বন করেছিল। আমরা ভূগর্ভে থেকেই সব কিছু স্বচ্ছন্দে সম্পন্ন করতাম। এটি করা বেশ সহায়ক ছিল।

[৬] ডাক্তার বালাউর জানান, এসব টানেলের অনেকগুলো ভূগর্ভস্থ গুহা হাসপাতালের সঙ্গে সংযুক্ত হয়েছিল। তিনি বলেন, আমরা তিনটি ভিন্ন স্থানে তিনটি ভিন্ন টানেল নির্মান করেছিলাম। সে সময় সেখানে প্রচন্ড বোমাবর্ষণ চলছিল। আমরা টানেল দিয়ে ওষুধ ও জিনিসপত্র আনা নেওয়া করতাম, এমনকি এ টানেল দিয়ে লাশও কবরস্তানে নিয়ে গিয়ে দাফন করতাম।

[৭] প্রায় ১০ বছর আগে পূর্ব গাওতায় রাসায়নিক অস্ত্রের হামলা চালায় বাশার সরকার। ২-১৩ সালের ২১ আগষ্টের ওই হামলায় নিহত হয় ১৪ শতাধিক মানুষ। হাজার হাজার নারী ও শিশু বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হন। এ হামলার শিকার লোকেরা এখনও সে ভয়াবহ ঘটনার দুর্বিষহ স্মৃতি বয়ে বেড়াচেছন। 

এসআই/আর/এইচএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়