শিরোনাম
◈ শান্তি-শৃঙ্খলা ফেরাতে আইনশৃঙ্খলা  বাহিনীকে কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ◈ সরকার আলোচনার কোনো পরিস্থিতি রাখেনি, কর্মসূচী অব্যাহত রাখার ঘোষণা: বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন ◈ বিটিভিতে হামলা-আগুন, সম্প্রচার বন্ধ ◈ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ◈ আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি, এটা দুর্বলতা নয়: ডিবিপ্রধান ◈ নরসিংদীতে গুলিতে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু, আহত শতাধিক ◈ চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২ ◈ নেত্রকোনায় ইউএনও, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ আহত অর্ধশত, ৭ আন্দোলনকারী গুলিবিদ্ধ ◈ শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে এগোতে চায় সরকার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ শিক্ষার্থীদের পরিবর্তে বিএনপি-জামাত আগুন-সন্ত্রাস নিয়ে মাঠে নেমেছে: ওবায়দুল কাদের   

প্রকাশিত : ২২ মার্চ, ২০২৩, ০৭:২৪ বিকাল
আপডেট : ২২ মার্চ, ২০২৩, ০৭:২৪ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

দিল্লিতে ‘মোদি হটাও দেশ বাঁচাও’ পোস্টার, শতাধিক এফআইআর, গ্রেফতার ৬

রাশিদুল ইসলাম: ভারতের রাজধানী দিল্লির বিভিন্ন স্থানে বিতর্কিত পোস্টার লাগানোর ঘটনায় দিল্লি পুলিশ ১৩৮টি এফআইআর নথিভুক্ত করেছে। এর মধ্যে ৩৬টি এফআইআর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে বিতর্কিত ‘মোদী হটাও দেশ বাঁচাও’ পোস্টারের জন্য নথিভুক্ত করা হয়েছে এবং ওই ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস/পারসটুডে

দিল্লি পুলিশ বলছে এই পোস্টারগুলোতে ছাপাখানার বিবরণ ছিল না, যা নিয়ম লঙ্ঘন। ওই বিষয়ে  পুলিশ ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে।  পুলিশের স্পেশাল সিপি দীপেন্দ্র পাঠক বলেন,  আম আদমি পার্টি অফিস থেকে বের হওয়ার সময় একটি ভ্যানকে থামানো হয়েছিল। পুলিশ ওই ভ্যান থেকে ১০ হাজারের বেশি পোস্টার বাজেয়াপ্ত করেছে। এসব পোস্টারে ছাপাখানার নাম বা ছাপানো ব্যক্তির নাম লেখা ছিল না, যা প্রিন্টিং প্রেস অ্যাক্টের লঙ্ঘন। এর পরে দিল্লি পুলিশ তৎপর হয়ে এ পর্যন্ত  ১০০টিরও বেশি এফআইআর নথিভুক্ত করেছে। পুলিশ সূত্রে খবর, দুটি ছাপাখানায় মোট এক লাখ পোস্টারের অর্ডার দেওয়া হয়েছিল। 

এদিকে, দিল্লির ‘আম আদমি পার্টি’র (আপ) দাবি, পোস্টারগুলোতে এমন  কিছুই আপত্তিজনক নেই। সেখানে কেবল বলা হয়েছে, ‘মোদি হটাও, দেশ বাঁচাও’। দিল্লি পুলিশের এই পদক্ষেপকে গণতন্ত্র বিরোধী বলে সমালোচনা করেছে ‘আম আদমি পার্টি’। এ ধরণের কাজ কেন্দ্রীয় সরকারের স্বৈরতান্ত্রিক মনোভাবেরই প্রকাশ বলে দলটি মন্তব্য করেছে।

‘আম আদমি পার্টি’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘মোদি সরকারের স্বৈরাচার চরমে। এই পোস্টারে এত আপত্তিকর কী আছে যে  ১০০ এফআইআর  দায়ের করা হয়েছে? প্রধানমন্ত্রী মোদি, আপনি হয়তো জানেন না ভারত একটি গণতান্ত্রিক দেশ। একটা পোস্টার দেখে এত ভয়! কেন?’  

‘আম আদমি পার্টি’র নেতা ও রাজ্যের মন্ত্রী গোপাল রাই বলেছেন, পিএম মোদি, ১০০ নয়, ১০০০ এফআইআর করান। কিন্তু আগামীকাল থেকে  ‘মোদি হাটাও দেশ বাঁচাও’ শ্লোগান প্রতিধ্বনিত হবে যন্তর মন্তর থেকে এবং সারা দেশে যাবে। এবার সব সীমা ছাড়িয়ে গেছে। স্বাধীনতা সংগ্রামীদের ঐতিহ্যকে যদি বাঁচাতে হয়, তবে একটাই উপায়- ‘মোদি হটাও, দেশ বাঁচাও’।

গোপাল রাই আরও বলেন, ‘বিজেপি হাজারো পোস্টার লাগাচ্ছে, কখনও এফআইআর  দায়ের  করা হয় না। প্রত্যেকদিন অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে বিজেপি পোস্টার  লাগায়, কখনও এফআইআর হয় না। এটা এক ধরনের ভয় দেখানো হচ্ছে। শ্লোগান দেওয়া বিভিন্ন দলের অধিকার। পুলিশের এমন একতরফা পদক্ষেপ নেওয়া উচিত নয়।’ 

ওই ইস্যুতে দিল্লি বিজেপির মুখপাত্র হরিশ খুরানা বলেছেন, আইন অনুযায়ী প্রিন্টারের নাম দিয়ে পোস্টার লাগাতে হয়। আম আদমি পার্টি পোস্টার লাগানোর ক্ষেত্রে আইন মানেনি। আইন তার কাজ করছে। এর মধ্যে রাজনীতি করার চেষ্টা করবেন না বলেও মন্তব্য করেছেন দিল্লি বিজেপির মুখপাত্র হরিশ খুরানা। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়