শিরোনাম
◈ প্রাইভেটকারের ওপর গার্ডার: ক্রেনের চালক ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা ◈ গার্ডার চাপায় নিহতদের ময়নাতদন্ত হবে সোহরাওয়ার্দীর মর্গে ◈ উত্তরায় দুর্ঘটনা: শিশু জাকারিয়া জীবিত ছিল আধাঘণ্টা ◈ পুলিশের উদ্দেশ্যই ছিল ছাত্রলীগের ছেলেদের মারবে: এমপি শম্ভু ◈ রাজধানীতে ক্রেন থেকে রড পড়ে ৫ পথচারী আহত ◈ চকবাজার ও উত্তরার ঘটনায় শোক জানিয়ে তদন্তের দাবি ফখরুলের ◈ মানবাধিকারকর্মীদের কথা শুনলেন জাতিসংঘের মিশেল ব্যাচেলেট ◈ উত্তরায় ক্রেন দুর্ঘটনা: বেঁচে রইলেন শুধু নবদম্পতি ◈ খায়রুনকে লাথি মেরে সেই রাতে বাইরে যান স্বামী ◈ উত্তরায় প্রাইভেট কারের উপর ফ্লাইওভারের গার্ডার, নিহত ৫ (ভিডিও)

প্রকাশিত : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ০৯:০৬ রাত
আপডেট : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ০৯:০৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

র‌্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার প্রতারক

গ্রেপ্তারকৃত ফরহাদ

সুজন কৈরী: রাজধানীর ভাটারা এলাকা থেকে ভুয়া ট্রাভেল এজেন্সী পরিচয়ে সরকারী ডাক্তার ও বিভিন্ন ব্যাংক কর্মকর্তা এবং নোটারী পাবলিকের অবৈধ সিল, প্যাড ব্যবহার করে ভারতসহ বিভিন্ন দেশে চিকিৎসা নিতে ইচ্ছুক গ্রাহকদের ভিসা তৈরী চক্রের মূল হোতাকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১। গ্রেপ্তারকৃতের নাম- ফরহাদ হোসেন। শুক্রবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, ভারতসহ বিভিন্ন দেশে চিকিৎসা নিতে ইচ্ছুক গ্রাহকদের ভুয়া ভিসা তৈরির মাধ্যমে গত পাঁচ বছরে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন ফরহাদ। তার টার্গেট অসহায়, অসুস্থ, দরিদ্র শ্রেণির রোগীরা। 

গ্রেপ্তারকৃত ফরহাদের কাছ থেকে মনিটর, সিপিইউ, স্ক্যানার, ৩টি পাসপোর্ট, ১২টি সরকারি ডাক্তারদের বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সিল, ২টি প্যাড, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের ভুয়া রিপোর্ট, বিভিন্ন ব্যাংকের স্টেটমেন্ট, ১টি রেজিস্টার, মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি নোমান আহমদ জানান, এক শ্রেণির স্বার্থান্বেষী সংঘবদ্ধ চক্র ভুয়া ট্রাভেল এজেন্সির পরিচয়ে সরকারি ডাক্তার ও বিভিন্ন কর্মকর্তা এবং নোটারি পাবলিকের অবৈধ সিল, প্যাড ব্যবহার করে পার্শ্ববর্তী দেশের ভুয়া ভিসা তৈরি করে অসহায়, অসুস্থ ও দরিদ্র শ্রেণির রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করছিলো।

চক্রটি বিভিন্ন প্রয়োজনে পার্শ্ববর্তী দেশে ভ্রমণে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের ভুয়া মেডিকেল ডকুমেন্ট তৈরি করে তাদের রোগী হিসাবে উপস্থাপন করে চিকিৎসা ভিসায় পার্শ্ববর্তী দেশে সকল প্রকার যাবতীয় কাগজপত্রাদি তৈরি করছিলো। র‌্যাব-১ এর গোয়েন্দা দল গোপন তথ্যের ভিত্তিতে প্রতারক ফরহাদকে শনাক্ত ও গ্রেপ্তার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার ফরহাদ জানিয়েছেন, তিনি গত ৫-৬ বছর ধরে চিকিৎসা ভিসায় যারা ভারতে যাওয়ার জন্য বৈধ উপায়ে ভিসা করতে পারেন না তাদের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালের ডাক্তারের সিল, প্যাড ব্যবহার করে ভুয়া মেডিকেল রিপোর্ট তৈরি করে ভিসা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন।

এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকের সিল ব্যবহার করে ব্যাংক স্টেটমেন্ট, ডলার এনড্রোস এবং নোটারি পাবলিকের সিল ব্যবহার করে অবৈধভাবে এনওসি তৈরি করেন। এসব কার্যক্রম তিনি বাসায় নিজস্ব কম্পিউটারের মাধ্যমে তৈরি করতেন।

ভিসা তৈরী সহ সকল অবৈধ কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে প্রতি ব্যক্তির কাছ থেকে প্রায় ৩-৬ হাজার টাকা আদায় করতেন। ভুয়া ভিসা তৈরি করে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। 

আটক ফরহাদ দীর্ঘদিন ধরে ভাটারা এলাকার আশপাশের বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সীর পরিচয়ে সরকারী ডাক্তার ও বিভিন্ন ব্যাংক কর্মকর্তা এবং নোটারী পাবলিকের সিল ব্যবহার করতেন। এছাড়াও তিনি বাসা ভাড়া নিয়ে অফিস পরিচালনা করে জালিয়াতি মাধ্যমে নিজে লাভবান হতে অসহায় অসুস্থ্য নিরিহ ব্যক্তিদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিতেন।

  • সর্বশেষ