শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৭ জুন, ২০২২, ০৩:৪৬ দুপুর
আপডেট : ২৭ জুন, ২০২২, ০৩:৪৬ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

গৃহবধূর বিরুদ্ধে স্বামীর লিঙ্গ কর্তনের অভিযোগ

গৃহবধূর বিরুদ্ধে স্বামীর লিঙ্গ কর্তনের অভিযোগ

হাসানুজ্জামান  : শনিবার গভীর রাতে এ ঘটনাটি ঘটেছে শাহজাদপুর উপজেলার পোতাজিয়া ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রাসাদ দক্ষিণপাড়া মহল্লার সাঈদ প্রামাণিকের বাড়িতে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে শাহজাদপুরের পোতাজিয়াস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।  গোপনাঙ্গে ১০টি সেলাই দেয়া গুরুতর আহত রবিউল ওই মহল্লার সাঈদ প্রামাণিকের ছেলে বলে জানা গেছে। 

রোববার দুপুরে সরেজমিন উপজেলার গঙ্গাপ্রাসাদ দক্ষিণপাড়া মহল্লা পরিদর্শনকালে রবিউলের মা তারিক খাতুন, বড়মা সুফিয়া খাতুন ও বোন শারমীনসহ স্বজনেরা জানায়, প্রায় ৮ মাস আগে উপজেলার হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের বেড়াকুচুটিয়া গ্রামের সেরাজুল ইসলামের মেয়ে সুষ্মিতা খাতুনের (২২) সঙ্গে উপজেলার গঙ্গাপ্রাসাদ এলাকার সাঈদ প্রামাণিকের ছেলে রবিউলের (২৬) বিয়ে হয়। 

সুষ্মিতার দাবি, শরীর খারাপ থাকায় সহবাস করতে স্বামী রবিউলকে বারণ করলেও রবিউল তাতে কর্ণপাত না করে শনিবার রাত ১১ টার দিকে সুষ্মিতার সাথে সহবাস করে ঘুমিয়ে পড়ে। ঘুম না আসায় ব্লেড দিয়ে নখ কাটতে কাটতে রাত ২ টার দিকে স্বামীর গোপনাঙ্গ ব্লেড দিয়ে পরিষ্কার করার সময় অসাবধানতা বশত স্বামীর লিঙ্গ কেটে যায়। 

এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসারত রবিউল জানান, সুষ্মিতা সন্ধ্যার সময় একটি ব্লেড কিনে দিতে বললে তা কিনে দেই। রাত ১১ টার দিকে সহবাস শেষে ঘুমিয়ে পড়ি। রাত ২ টার দিকে প্রচন্ড ব্যথায় ঘুম ভেঙে গেলে দেখতে পাই সুষ্মিতা ব্লেড দিয়ে আমার লিঙ্গ কর্তন করে। এ সময় শরীর থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। 

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়