শিরোনাম
◈ স্বল্প সংখ্যক কোটা থাকতে পারে অনগ্রসর ও প্রতিবন্ধিদের জন্য: জি এম কাদের ◈ ৫ শতাংশ কোটা রেখে সংসদে আইন পাসের দাবিতে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম ◈ রেলওয়ের চাকরিতে ৪০ শতাংশ পোষ্য কোটা কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট ◈ আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ লেলিয়ে দেবেন না: সুপ্রিম কোর্ট বার সভাপতি ◈ জামালপুরে বন্যার পানিতে গোসলে নেমে ৪ জনের মৃত্যু ◈ সাংবাদিকদের পেনশন স্কিমে যুক্ত হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ◈ মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে এতো ক্ষোভ কেনো, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর ◈ ট্রাম্পের ওপর হামলা নিন্দনীয়: শেখ হাসিনা  ◈ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিকে আর্তমানবতার সেবায় আরও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির ◈ কোটা প্রসঙ্গে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে এখন আমার বলার কিছুই নাই: প্রধানমন্ত্রী 

প্রকাশিত : ০২ জুন, ২০২৪, ০৯:১৬ রাত
আপডেট : ০৩ জুন, ২০২৪, ১১:০৪ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিশ্ব পর্যটনে বেশ পিছিয়ে বাংলাদেশ, শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ এশিয়ায় ভারত 

সালেহ ইমরান: [২] ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরারামের ট্রাভেল অ্যান্ড টুরিজম ডেভেলপমেন্ট ইনডেক্স-২০২৪ এ ১১৯টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১০৯ এ। 

[৩] করোনার পর এই প্রথম পূর্ণাঙ্গ পর্যটন তালিকা করেছে ফোরামটি। মহামারীর আগে ২০১৯ সালে ২০০ দেশের পর্যটন নিয়ে করা জরিপে বাংলাদেশের অবস্থান ছিলো ১০৪। 

[৪] এবার ৩.১৩ স্কোর নিয়ে নিয়ে দক্ষিণ এশিয়া ও এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলে সবচেয়ে নিচে রয়েছে বাংলাদেশ। যে সব মানদণ্ডে এই বিচার করা হয়েছে, তার মধ্যে বাংলাদেশ সবচেয়ে ভালো কেেরছ পর্যটন ও ভ্রমণবিষয়ক সম্পদের মানদণ্ডে। 

[৫] যুক্তরাজ্যের সারে বিশ্ববদ্যিালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে এই সূচক প্রণয়ন কেেরছ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম। দ্বিবার্ষিক এই সূচকে বিভিন্ন উপাদান ও সরকারের নীতি পর্যালোচনা করা হয়েছে। 

[৬] এই তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ায় ৪.২৫ পয়েন্ট নিয়ে এই অঞ্চলে শীর্ষে রয়েছে ভারত। বিশ্ব রাংকিংয়ে তাদের অবস্থান ৩৯তম। ৭৬তম অবস্থানে আছে শ্রীলঙ্কা, ১০১ এ পাকিস্তান ও ১০৫ এ নেপাল। 

[৭] এই ইনডেক্সে সোয়া ৫ পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শীর্ষ দেশগুলোর মধ্যে আরো আছে স্পেন, জাপান, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানী, ইতালী, চীন ও সুইজারল্যান্ড। 

[৮] তালিকায় ২.৭৮ স্কোর নিয়ে সবচেয়ে নিচে আছে মালি। পিছিয়ে থাকা দেশগুলোর মধ্যে আরো আছে ক্যামেরুন, নাইজেরিয়া ও জিম্বাবুয়ে। 

[৯] র‌্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে পরিবেশ, ভ্রমণ-পর্যটন নীতি ও সক্ষমতা, অবকাঠামো ও পরিষেবা, ভ্রমণ ও পর্যটন এলাকা এবং স্থায়ীত্ব এই পাঁচটি সূচককে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। বাংলাদেশের এই পাঁচ সূচকে স্কোর যথাক্রমে ৩.৯৩, ৩.৫০, ২.৮, ১.৯৫ও ৩.২৪। 

[১০] তবে উন্মুক্ত বাজার, স্থল ও বন্দর অবকাঠামো এবং নিরাপত্তায় ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। কিন্তু পর্যটন প্রক্রিয়া, দূষিত পরিবেশ ও অদক্ষ মানবসম্পদের কারণে অনেক পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়