শিরোনাম
◈ লঞ্চের ভাড়া পুনর্নির্ধারণে বৈঠক আজ ◈ জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে জাতীয় পার্টির দুইদিনের কর্মসূচি ◈ সদরঘাটে দুই লঞ্চের চাপায় পড়ে ট্রলারযাত্রী নিহত ◈ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ ◈ রাজধানীর শাহবাগে আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশের হামলা, আহত ২০ (ভিডিও) ◈ রাজধানীতে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের মামলায় জামায়াতের ৬ কর্মী গ্রেপ্তার ◈ হজে গিয়ে ভিক্ষা: অবশেষে জামিন পেলেন মতিয়ার ◈ মাঝিপাড়া হিন্দুপল্লীতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ৫১ আসামি কারাগারে ◈ পরিবারের ৪ জনই ভুয়া চিকিৎসক, করেন জটিল রোগের চিকিৎসা ◈ চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ, মূল পরিকল্পনাকারীসহ গ্রেপ্তার ১০

প্রকাশিত : ০৬ জুলাই, ২০২২, ১১:৪১ দুপুর
আপডেট : ০৬ জুলাই, ২০২২, ১১:৪১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিশেষ সুবিধা পাচ্ছে খেলাপিরা

চামড়া সংগ্রহে ৪৮১ কোটি টাকার ঋণ পর্যাপ্ত নয় 

চামড়া

মাজহারুল ইসলাম: চামড়া কিনতে খেলাপি গ্রাহকরা মাত্র ২ শতাংশ অর্থ জমা দিয়েই ঋণ পুনঃতফসিলের সুযোগ পাবেন। এ খাতের উদ্যোক্তাদের এবার ৪শ’ ৮১ কোটি টাকা ঋণ দেবে ব্যাংক। ট্যানারি মালিকরা বলছেন, এ অর্থ পর্যাপ্ত নয়। চামড়া কিনতে ৬শ’ কোটি ঋণের দাবি তাদের। যমুনাটিভি
ট্যানারি শিল্পের মূল উপাদান পশুর চামড়া, যার বড় অংশই সংগ্রহ করা হয় কোরবানির ঈদের সময়। কিন্তু চামড়া কিনতে দরকার প্রচুর নগদ অর্থের। যার যোগান দিয়ে থাকে বিভিন্ন ব্যাংক। এবার ৪৮১ কোটি টাকা ঋণ দেয়া হবে চামড়া সংগ্রহে। ব্যাংকাররা বলছেন, টাকা দেয়ার ক্ষেত্রে বকেয়া ঋণ সমন্বয় করা হবে।

অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শামস্ উল ইসলাম বলেন, প্রায় ৪শ’ ৮১ কোটি টাকা বরাদ্দের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। চামড়া মালিকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে গতবারের চেয়ে বেশি টাকা বরাদ্দ দেয়া হবে। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব নীতি রয়েছে।

রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ জানান, গত বার ৩০ কোটি টাকা ঋণ দেয়া হয়েছিল ৩টি কোম্পানিকে। এবারও সেই অর্থই দেয়া হবে। যদি আরও বেশি চায় তবে সেটিও দেয়া সম্ভব।

ট্যানারি শিল্প মালিকরা বলছেন, ব্যাংকগুলো যে ঋণ দেয়ার কথা বলছে, তা কাগজে কলমে। বাস্তবে চামড়া কিনতে তাদের তেমন কোনো অর্থ দেয়া হয় না। ঋণের নামে আগের অর্থ সমন্বয় করা হয়ে থাকে।
বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহীন আহমেদ বলেন, ঈদুল আজহায় এক থেকে দেড় হাজার কোটি নগদ টাকার প্রয়োজন হয়। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ১৬৫ কোটি টাকা দিচ্ছে, যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই অপ্রতুল।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, চামড়া কিনতে অর্থের কোনো সংকট হবে না। ঋণের বিষয়ে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে আগেই। দুই শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়েই খেলাপি ঋণ পুনঃতফসিল করতে পারবেন। 

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম বলেন, গত দুই বছরের করোনা মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত এই খাত। সেক্ষেত্রে অর্থ পুনরুদ্ধারের ব্যাপারে নীতিমালা কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। যদি দেখা যায় সেই পরিমাণ চামড়া ট্যানারিতে মজুদ আছে তবে বুঝতে হবে যে, চামড়া কেনা হয়েছে ফান্ড অন্যদিকে ডাইভার্ট করে। সেটা বিবেচনা করে কেবল ডাউন পেমেন্ট নিয়ে নতুন করে ঋণ দেয়ার জন্য ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। চামড়া কেনার সুবিধার্থে বরাদ্দকৃত ঋণ কোরবানি ঈদের আগেই ব্যবসায়ীদের মধ্যে বিতরণের নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। 

  • সর্বশেষ