শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ, ২০২৩, ০৮:২১ সকাল
আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০২৩, ১২:০৩ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

দুদকের বার্ষিক প্রতিবেদন

দুর্নীতিগ্রস্তদের বিপুল পরিমাণ  সম্পদ ক্রোক ও অবরুদ্ধ করেছে দুদক 

বিপ্লব সিকদার: দুদক চেয়ার‍ম্যান মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহর নেতৃত্বে কমিশন গত সোমবার (২০ মার্চ) বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কাছে বার্ষিক প্রতিবেদনটি হস্তান্তর করে।সেই প্রতিবেদনে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় গত বছর বিপুল পরিমাণ অর্থ, সম্পদ ক্রোক ও অবরুদ্ধ করা হয়েছে। আদালতের আদেশে মোট ৮১০ কোটি ৭২ লাখ ৩৩ হাজার ৩২২ টাকার সম্পদ ক্রোক ও অবরুদ্ধ করা হয়েছে। দুদকের ২০২২ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছর আসামিদের অপরাধলব্ধ ৫৮৫ কোটি ৯২ লাখ ৫৮ হাজার ১৫৬ টাকার স্থাবর সম্পদ ক্রোক করা হয়েছে। একই বছরে ২২৪ কোটি ৭৯ লাখ ৭৫ হাজার ১৬৬ টাকার অস্থাবর সম্পদ অবরুদ্ধ করা হয়েছে। 

ক্রোক করা স্থাবর সম্পদগুলো হলো- ৪৪ কোটি ৬৯ লাখ ১৪ হাজার ৪৫৩ টাকা মূল্যের ১১৪ দশমিক ২৪ একর জমি, ৫৩০ কোটি ২৬ লাখ ৩৫৯ টাকা মূল্যের বহুতলবিশিষ্ট ২৭টি পাকা বাড়ি, ৭ কোটি ৫৯ লাখ ৭৬ হাজার ৪৪৪ টাকা মূল্যের ১৯টি ফ্ল্যাট, ১ কোটি ৬০ লাখ ৭ হাজার ৮শ’ টাকা মূল্যের ১১টি প্রাইভেট কার ও ১ কোটি ৭৭ লাখ ৫৯ হাজার ১শ’ টাকা মূল্যের ৪টি নৌযান। তবে একটি প্লট ও একটি দোকানের মূল্য উল্লেখ করা হয়নি। অস্থাবর সম্পদের মধ্যে ১ হাজার ৪৪৮টি ব্যাংক হিসাব ও ১১টি এফডিআরে স্থিতি ১৪৫ কোটি ৫৮ লাখ ৩৯ হাজার ৭০৬ টাকা ও ২৭ হাজার ৯৫৬ ইউএস ডলার এবং ৭৯ কোটি ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৪৬০ টাকার শেয়ার। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, কমিশন শুধু দেশে নয়, বিদেশেও অর্থ পাচারকারীদের তাড়া করছে। দুর্নীতিগ্রস্ত কোনো ব্যক্তি যেন অনুপার্জিত আয় ভোগ করতে না পারে দুদক সেই আইনি দায়িত্ব পালন করছে।  

বিএস/এইচএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়