শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ০২:৪৬ দুপুর
আপডেট : ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ০২:৪৬ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

শ্রীনগরে সেতুতে দোকান পাট-অটো স্ট্যান্ডে ভোগান্তি

সেতুতে দোকান পাট-অটোস্ট্যান্ড

অমিত খাঁন, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) : মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে সেতুতে ভাসমান দোকান পাট ও ব্যাটারি চালিত অটোস্ট্যান্ডে মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে। শ্রীনগর বাজার সংলগ্ন সেতুগুলোতে সব সময় হকার ও অটোর দখলে থাকতে দেখা গেছে। সেতুতে সারাক্ষণ জ্যাম জট লেগেই থাকছে। 

উপজেলার সদরে স্কুল-কলেজ, সরকারি বেসকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াতকারী লোকজন সেতুতে জ্যাম জটের ভিড়ে আটকা পড়ছেন। এতে সাধারণ জণগন সেতুতে যাতায়াতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। বিশেষ করে সকালে স্কুল কলেজে পড়ুয়া শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সেবামূলক পতিষ্ঠানগুলোতে আসা হাজার হাজার মানুষ প্রতিনিয়ত সেতুর জ্যামে আটকা পড়ে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, শ্রীনগর চকবাজার সেতু, শ্রীনগর পোষ্ট অফিস সংলগ্ন সেতু ও ঝুমুর হল রোডের সামনে ইসলামিক ব্যাংকের সামনে খালের ওপর শ্রীনগর বাজারে প্রবেশের সেতুতে ভাসমান দোকান ও অটো স্ট্যান্ডে প্রচুর যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। সেতুগুলোতে বিভিন্ন দোকানের পাশাপাশি অটো পার্কিং করায় জটলা সৃষ্টি হচ্ছে।

অন্যদিকে শ্রীনগর বাজার সংলগ্ন সরকারি সুফিয়া এ হাই খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মেইন ফটকের সামনে নিয়ন্ত্রণহীনভাবে গড়ে উঠেছে বেপরোয়া অটো স্ট্যান্ড। সেতুর ওপরে কাভার্ড ভ্যান, অন্যান্য ট্রাক ও গাড়ি পার্কিং করে রাখা হয়েছে।

ঘন্টার পর ঘন্টা এসব পরিবহনে মালামাল লোড-আনলোডের পাশাপাশি অসংখ্য অটোরিক্সার সারিতে পুরো সেতু আটকা পরেছে। এ পরিস্থিতিতে শ্রীনগর-দোহার আঞ্চলিক সড়কের সংযোগ সেতুগুলোতে অন্যান্য যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। সেতুতে সৃষ্টি হচ্ছে অসস্তিকর যানজট। নানামুখী ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন অসংখ্য মানুষ।

জানা গেছে, শ্রীনগর বাজার ও এর আশপাশের সেতু, বিভিন্ন রাস্তার মোড়সহ গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের সামনে এসব অটোস্ট্যান্ড দিয়ে একটি মহল আর্থিক সুবিধা নিচ্ছে। সিন্ডিকেট চক্রের সদস্যরা আড়ালে থেকে লাইনম্যান দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করছে এসব অটোস্ট্যান্ড। 

অটোস্ট্যান্ডে তদরকির জন্য লোক দেখানো মাত্র লাইনম্যান রাখা হয়েছে। প্রত্যোক অটো চালকের কাছ থেকে দৈনিক ২০/৩০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। এছাড়াও ইকবাল হোসেন নামে এক হকার নেতার মাধ্যমে শ্রীনগর বাজার সংলগ্ন সেতুগুলোতে বসানো হচ্ছে দোকান পাট। ওই হকার নেতার মাধ্যমে দৈনিক এসব দোকানির কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা উত্তোলন করা হচ্ছে। সিন্ডিকেট মহলটি এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় সাধারণ মানুষ মুখ খুলতে সাহস পান না।

জানা যায়, উপজেলার আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভার টেবিলে গুরুত্বের  সাথে সেতুর জ্যাম জট নিরসনের বিষয়ে আলোচনা হলেও মূলত কার্যকরী পদক্ষেপ না থাকায় সেতু দখলমুক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলা প্রশাসনের ঝটিকা অভিযানে সেতুগুলো দখলমুক্ত হলেও কিছুক্ষণ বাদেই সেতু দখলের চিত্র চোখে পড়ছে। এখানে অটোর লাইনম্যান কোনো কাজে আসছে না।

হকার নেতা মো. ইকবাল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে এ ব্যাপারে তিনি কথা বলতে রাজি হননি।

 এ ব্যাপারে জানতে শ্রীনগর ইউনিয়ন (সদর) পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলামের সাথে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

শ্রীনগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব মো. জুয়েল লস্করের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় কথা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন এখানকার যানজট নিরসনের জন্য আশ্বাস দিয়েছেন। সম্পাদনা : জেরিন আহমেদ

প্রতিনিধি/জেএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়