শিরোনাম
◈ বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হচ্ছে, ফ্রান্সে শিক্ষামন্ত্রী ◈ শিক্ষককে হেনস্তার ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট ◈ হবিগঞ্জের একজনের মৃত্যুদণ্ড, ৩ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড ◈ সাকিবকে নিয়ে আবার সমস্যায় বিসিবি ◈ পদ্মা সেতুর অর্থায়ন বন্ধের অভিযোগ কল্পনাপ্রসূত: ইউনূস সেন্টার ◈ পদ্মা সেতু নিয়ে ভারতের উচ্ছ্বাস, ফের বাস চলাচল শুরু  ◈ লড়াকু বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রদ্ধা ◈ জাতিসংঘ মহাসাগর সম্মেলনে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবেন মোমেন ◈ আঞ্চলিক বাণিজ্য উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের ১০৩ কোটি ডলার মঞ্জুর ◈ 'মন ভালো নেই' লেখা শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানো নোটিশ

প্রকাশিত : ২৪ জুন, ২০২২, ০২:৩০ রাত
আপডেট : ২৪ জুন, ২০২২, ০৯:৩৭ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

উত্তরপত্রে ‘আজকে মন ভালো নেই’ লেখা শিক্ষার্থীকে ডেকেছে বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরীক্ষার উত্তরপত্রে ‘স্যার আজকে আমার মন ভালো নেই’ লিখে অনেকটা বিপাকেই পড়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রথম বর্ষের এক শিক্ষার্থী। উত্তরপত্রের ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে হাস্যরসের পাশাপাশি সমালোচনার জন্ম দেয়। ওই শিক্ষার্থীকে রোববার বিভাগীয়ভাবে ডাকা হয়েছে। 

জানা গেছে, মিডটার্ম পরীক্ষার অতিরিক্ত একটি উত্তরপত্র সঙ্গে করে নিয়ে যান ওই শিক্ষার্থী। গত বুধবার রাতে সেই উত্তরপত্রে ‘আজকে আমার মন ভালো নেই’ লিখে ছবি তুলে নিজের ফেসবুক আইডিতে পোস্ট দেন তিনি। পরে সরিয়ে নিলেও ছবিটি ভাইরাল হয়।  

এ বিষয়ে ওই শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, তিনি ফানি পোস্ট দিয়েছিলেন। পরে বুঝতে পেরে তিনি পোস্টটি ডিলিট করে দেন। তিনি বুঝতে পারেননি বিষয়টি এ পর্যায়ে যাবে। উত্তরপত্রে ইনভিজিলেটরের সই তিনি নিজেই করেছেন।

ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. মমিন উদ্দীন বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে পরিষ্কারভাবে এখনো কিছু জানি না। ওই শিক্ষার্থীকে রোববার বিভাগে এসে দেখা করতে বলা হয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে সম্পূর্ণ জেনে পরের পদক্ষেপ নেব।

ভাইরাল হওয়া অতিরিক্ত উত্তরপত্রে ইনভিজিলেটরের সইটি ইংরেজি বিভাগের কোনো শিক্ষকের নয় বলে জানিয়েছেন বিভাগের চেয়ারম্যান। অপরাধ প্রমাণ হলে ওই শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা বহিষ্কার করতে পারি না। এটা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবে। রোববার ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে আমরা সিদ্ধান্ত জানাব। 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমি এখনো কিছু জানি না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এ কে এম আক্তারুজ্জামান বলেন, বিষয়টি নিয়ে বিভাগ যা বলবে, তা—ই হবে। তা ছাড়া উত্তরপত্রটি আমি দেখিনি। তাই এ বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়