শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৬ মে, ২০২২, ০৪:৩৬ দুপুর
আপডেট : ২৬ মে, ২০২২, ০৪:৩৬ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

শিক্ষার্থীদের মানসিক সমস্যা সমাধান

আঁচল ফাউন্ডেশন জবি চ্যাপ্টারের বছর পূর্ণ

অপূর্ব চৌধুরী: [২] জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীদের মানসিক সমস্যা সমাধানে আঁচল ফাউন্ডেশনের চ্যাপ্টার গঠনের এক বছর পূর্ণ হয়েছে। গত বছরের ২৫মে গঠন করা হয় চ্যাপ্টারটি৷ বর্তমানে চ্যাপ্টারটির অধীনে একটি কাউন্সেলিং টিম মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত মৌলিক বিষয়গুলো নিয়ে ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। 

[৩] আঁচল ফাউন্ডেশনের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টার অন্যান্য চ্যাপ্টারের মতই তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক সেমিনার ও তরুণদের কর্মোদ্যম করা এবং তাদের চিন্তাভাবনাকে প্রসারিত করার জন্য বিভিন্ন সেশন আয়োজন করা হয়।

[৪] শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে ধারণা দেওয়া, বিনামূল্যে কাউন্সেলিং করানো, মানসিক অসুস্থতা, ভয়, অতীত অভিজ্ঞতা সহ মানসিক সমস্যা সমাধানে সেবা দিচ্ছে কাউন্সেলিং টিম।

[৫] পাশাপাশি সম্প্রতি 'মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নের উপায়' এবং 'দুশ্চিন্তা কাটিয়ে উঠা' নামের দুইটি অনলাইন সেশন আয়োজন করা হয় চ্যাপ্টারের উদ্যোগে। এর পূর্বে গতবছরের ১০অক্টোবর বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে 'অসম বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য' নামে একটি ওয়েবিনারের আয়োজন করা হয়। যেখানে প্রধান বক্তা হিসেবে ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. শাহীন মোল্লা। 

[৬] একইসাথে 'তোমার মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাপার' নামক একটি প্রজেক্ট করা হয়। যেখানে মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সচেতনতা তৈরি করতে বিভিন্ন ধরনের মানসিক রোগ, লক্ষণ, প্রতিকার ও প্রতিরোধ নিয়ে বিভিন্ন কন্টেন্ট তৈরি করা হয়। এই চ্যাপ্টারটি মোট ৭টি টিমে কাজ করছে। 

[৭] আঁচল ফাউন্ডেশন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টারের ম্যানেজার আফরোজা জাহান তাজিন বলেন, বর্তমান বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে মানসিক স্বাস্থ্যের সামঞ্জস্য রেখে চলাটা এখন তরুণ প্রজন্মের জন্য এক প্রকার অগ্নিপরীক্ষা। কারণ বর্তমানে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে যে এই প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বের সাথে খাপ খাওয়াতে না পেরে এই তরুণরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছেন।

[৮] তিনি বলেন, বিপর্যস্ততা থেকে একটি সময়ে তরুণরা নিজেদের স্বপ্ন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছেন। বিষয়গুলো মাথায় রেখেই মূলত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টারের কাজ শুরু করা হয়। যেন কেউ সঠিক গাইডলাইনের অভাবে আর ঝরে না পড়ে। যেখানে আঁচলের সার্টিফাইড কাউন্সেলর দ্বারা খুব সহজেই সেবা দেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে দূরবর্তী পরিকল্পনা রয়েছে।

[৯] প্রসঙ্গত, মানসিকভাবে তরুণ সমাজকে সুস্থ ও উদ্দীপ্ত রাখার লক্ষ্যে ২০১৯ সালের ২৫ এপ্রিল যাত্রা শুরু কর আঁচল ফাউন্ডেশন। যাত্রা শুরু করার পর থেকেই ব্যাপকভাবে তরুণদের সাড়া পাওয়া যায়। বর্তমানে আঁচল ফাউন্ডেশন বেশ কয়েকটি চ্যাপ্টার খুলেছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টার, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টার, ইডেন মহিলা কলেজ চ্যাপ্টার ও হোম-ইকোনমিক কলেজ চ্যাপ্টার।

 

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়