শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ০৪:২৭ দুপুর
আপডেট : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ০৪:২৭ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারদের ফেসবুক মনিটরিংয়ের নির্দেশ

শরীফ শাওন: বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের কতিপয় সদস্য সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে তাদের ব্যক্তিগত ওয়ালে ও বিভিন্ন গ্রুপে সহকর্মী, অধ্যক্ষ, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এবং কর্তৃপক্ষের গৃহীত সিদ্ধান্তের বিষয়ে অশোভন, অনৈতিক, শিষ্টাচার বহির্ভূত ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দিচ্ছে জানিয়ে মনিটরিংয়ের নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। 

বৃহস্পতিবার রাতে মাউশির জরুরি নোটিশে আরও বলা হয়, এতে শিক্ষা ক্যাডার, মাউশি এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে। বিসিএস কর্মকর্তাগণ যে সকল প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন সে সব প্রতিষ্ঠান প্রধানকে নির্দেশিত বিষয়টি মনিটরিংয়ের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ক্যাডারের কোন সদস্য কারো কন্টেন্ট বা পোষ্ট সংক্ষুদ্ধ হলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে প্রমাণকসহ মাউশিতে আবেদন করতে বলা হয়েছে।

মাউশি জানায়, এ ধরণের কর্মকান্ড সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা ও আইন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ব্যবহার সংক্রান্ত নির্দেশিকার পরিপন্থী। এসকল কার্যালাপ থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দেওয়া হলো। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ক্যাডারদের যে সকল সদস্য নাম ব্যবহার করে গ্রুপ খুলেছেন, সকল গ্রুপ অ্যাডমিনকে গ্রুপে কন্টেন্ট বা পেষ্ট অনুমোদনের ক্ষেত্রে সরকারি আইন বা বিধি প্রতিপালনের নির্দেশনা দেওয়া হলো।

যেসকল কন্টেন্ট প্রাকশ করা যাবে না : ক) জাতীয় ঐক্য ও চেতনার পরিপন্থী কোনরকম কন্টেন্ট; খ) কোন সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগতে পারে এমন বা ধর্মনিরপেক্ষতার নীতি পরিপন্থী কোন কন্টেন্ট; গ) রাজনৈতিক মতাদর্শ বা আলোচনা-সংশ্লিষ্ট কোন কন্টেন্ট; ঘ) বাংলাদেশে বসবাসকারী কোন ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী, বা সম্প্রদায়ের প্রতি বৈষম্যমূলক বা হেয় প্রতিপন্নমূলক কন্টেন্ট; ঙ) কোন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা রাষ্ট্রকে হেয় প্রতিপন্ন করে এমন কন্টেন্ট; চ) লিঙ্গ বৈষম্য বা এ সংক্রান্ত বিতর্কমূলক কোন কন্টেন্ট; ছ) জনমনে অসন্তোষ বা অপ্রীতিকর মনোভাব সৃষ্টি করতে পারে এমন কোন বিষয়। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়