শিরোনাম
◈ সিরিজ বোমা হামলার ১৭ বছর পূর্তিতে সারা দেশে আওয়ামী লীগ বিক্ষোভ করবে ◈ ১৭ বছরেও সিরিজ বোমা হামলার বিচার শেষ হয়নি ◈ কর্তৃপক্ষের আশ্বাস পেয়ে আন্দোলন প্রত্যাহার করলেন খুবি শিক্ষার্থীরা ◈ নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ সদস্যের ট্রাস্টি বোর্ড পুনর্গঠন ◈ কুয়াকাটায় অনির্দিষ্টকালের জন্য হোটেল-রেস্তোরাঁ বন্ধ ঘোষণা ◈ ছাত্রদের মারধর করায় ট্রেন অবরোধ, দুই সহকারী চেকার সাসপেন্ড ◈ দেশের মানুষ এখন অনেক শান্তিতে আছে : সমাজকল্যাণমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে আমরা স্বাধীনতা পেতাম না: রণজিৎ কুমার রায় এমপি ◈ উত্তরায় গার্ডার পড়ে নিহত ৪ জনের দাফন জামালপুরে সম্পন্ন ◈ দিরাইয়ে বসতঘর থেকে যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত : ৩০ জুন, ২০২২, ০৮:১২ রাত
আপডেট : ৩০ জুন, ২০২২, ০৮:১২ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

শিক্ষার্থীদের অধঃপতন রোধে

শিক্ষাক্রমে নৈতিক শিক্ষা যুক্ত করা প্রয়োজন: ইউজিসি

ইউজিসি

শরীফ শাওন: শিক্ষার্থীদের নৈতিক অধঃপতন ঠেকাতে সব বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রমে নৈতিক শিক্ষার বিষয়টি যুক্ত করা জরুরি বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। পাশাপাশি বিভাগের সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের আচরণের বিভিন্ন দিক মূল্যায়নে কোর্স শিক্ষকদের নম্বর বরাদ্দের ব্যবস্থা করতে আহ্বান জানান। 

বৃহস্পতিবার চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. দিল আফরোজা বেগম এসব বিষয় জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক চর্চার পরিবেশ নিশ্চিত করারও পরামর্শ দেন। 

দিল আফরোজা বেগম বলেন, সম্প্রতি প্রাথমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে মূল্যবোধের অবক্ষয় পরিলক্ষিত হচ্ছে। ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক অভিভাবকতুল্য ও বন্ধুসুলভের পরিবর্তে বৈরীভাব বিরাজ করছে। শিক্ষার্থীরা কেন সহিংস আচরণ করছে তা শিক্ষকদের খতিয়ে দেখতে হবে। তাদের কাউন্সিলিং সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সব বিশ্ববিদ্যালয়ে একজন মনোবিজ্ঞানী বা ছাত্র উপদেষ্টা নিয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্ত চিন্তার বিকাশের পরিবেশ তৈরি এবং সাংস্কৃতিক চর্চা বাড়ানোর পদক্ষেপ নিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, অনেক বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষার্থীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়াকে পড়ালেখার ক্ষতি বলে মনে করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আরও দ্রুত নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এইচএসসি পরীক্ষার পরে কোন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া ও পাঠদান শুরু হবে সেটি সুনির্দিষ্ট করা নেই। এ কারণে একজন শিক্ষার্থীকে এক থেকে দুই বছর মূল্যবান সময় নষ্ট করতে হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া ঠিকমতো হচ্ছে কিনা, গুণগত শিক্ষা পাচ্ছে কিনা, একইসঙ্গে র‌্যাংকিংয়ে যাওয়ার শর্তগুলো পূরণের দিকেও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নজর রাখতে হবে।

  • সর্বশেষ