শিরোনাম

প্রকাশিত : ২২ জানুয়ারী, ২০২২, ০৪:০৬ সকাল
আপডেট : ২২ জানুয়ারী, ২০২২, ০৪:০৬ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিক্রি করা শিশুকন্যাকে ফিরে পেলেন বাবা-মা

নিউজ ডেস্ক: স্বরূপকাঠির দুর্গাকাঠি গ্রামের পরিমল ও কাজল দম্পতি তাদের বিক্রি হওয়া ১৮ দিনের শিশুকন্যাকে কোলে ফিরে পেয়েছেন। স্বরূপকাঠি থানা পুলিশের প্রচেষ্টায় বিক্রির মধ্যস্থতাকারী আরতী রানি সন্ধ্যার মাধ্যমে বৃহস্পতিবার রাতে ওই শিশুকে তার বাবা-মায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

১৮ দিনের শিশুকন্যাকে ফিরে পেয়ে মা কাজল রানি অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন। বৃহস্পতিবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে শিশু বিক্রির খবর প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে টাকা আত্মসাৎকারী বিজন হালদার ও তার সহযোগী রনজিত মণ্ডল গা ঢাকা দিয়েছে।

জানা গেছে, পরিমল ব্যাপারীর অভাবের সুযোগ নিয়ে বিজন হালদার ও তার সহযোগী রনজিত মণ্ডল তার ১৮ দিনের শিশুকন্যাকে বিক্রি করতে প্রলুব্ধ করে। পরিমল ব্যাপারীর অভিযোগ- এক লাখ ৬৫ হাজার টাকায় তার সন্তান বিক্রি করা হলেও তাকে মাত্র ১০ হাজার টাকা দিয়ে বাকিটা ওই প্রতারকরা আত্মসাৎ করে।

শিশু বিক্রির খবর ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ তৎপর হয়। এ ঘটনায় ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েন শিশু বিক্রির মধ্যস্থতাকারী ও ক্রেতা দম্পতির আত্মীয় আতা গ্রামের সুকুমার রায়ের স্ত্রী আরতী রানি ওরফে সন্ধ্যা রায়। ওই রাতেই শিশুটিকে উদ্ধার করে তার বাবা-মায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এ বিষয় নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠি) থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, উদ্ধার করা শিশুকে তার পরিবারের কাছে দেওয়া হয়েছে। শিশু বিক্রির বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়