প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ঢাকায় নৌকা বেচাকেনা হয় জানতাম না’: কুমিল্লায় বিদ্রোহী প্রার্থীর বক্তব্য ভাইরাল (ভিডিও)

নিউজ ডেস্ক: কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার ১ নম্বর কালীরবাজার ইউনিয়নের টানা তিনবারের চেয়ারম্যান মো. সেকান্দার আলী। তবে এ বছর আওয়ামী লীগ তাকে মনোনয়ন দেয়নি। ফলে বিদ্রোহী হিসেবে আনারস প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। তৃণমূল রায় দেওয়ার পরও মনোনয়ন না পাওয়ায় দলের হাইকমান্ডের প্রতি তীব্র ক্ষোভ ঝেড়েছেন এই নেতা। মনোনয়ন নিয়ে বাণিজ্য হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার তার এমন বক্তব্যের ভিডিও ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সমকাল

সেকান্দার আলী বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন। গতকাল তিনি আনারস প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে অনুসারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন। পরে তিন মিনিট ১২ সেকেন্ডের এ বক্তব্যই ভাইরাল হয়ে যায়।

ভিডিওতে সেকান্দার আলী বলেন, ‘আমরা জন্মগত নৌকা, আওয়ামী লীগ। আমার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ষড়যন্ত্র হইছে। ইউনিয়ন কমিটি, থানা কমিটি, জেলা কমিটি, আমাদের এমপি মহোদয় ডিও লেটার দিয়া নৌকার জন্য পাঠাইছে। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী পাইছে ১৩ ভোট (তৃণমূলের প্রার্থী বাছাই ভোট), আমি পাইছি ৭৬ ভোট। আমি জানি না, আমার নামে কেন নৌকা আসছে না। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার।’

তিনি আরও বলেন, ‘নৌকা পাওয়ার কথা আমি; কিন্তু নৌকা পাইছে ১৩ ভোটওলায়। আমি ৭৬ ভোটওলায় নৌকা পাইছি না। যে আজকে নৌকা নিয়া আসছে, সে এক বছর আগে আওয়ামী লীগে যোগ দিছে। হের টুটাল ফ্যামিলি জামায়াত-বিএনপি-শিবির এবং তারা কোনো দিন আওয়ামী লীগ করে নাই।’

সেকান্দার আলী বলেন, ‘নৌকা আমার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নৌকা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নৌকা। নৌকা কীভাবে কিনল, কীভাবে বেচল জানি না। আমাদের কুমিল্লার যত প্রতিনিধি আছে, যত নেতৃবৃন্দ, কেউ জানেন না। ঢাকার মধ্যে নৌকা বেচাকেনা হয়, তা আমি আগে জানতাম না। আমার যে নৌকা বেচাকিনা হয়ে গেছে। আওয়ামী লীগ করি, আমি করব। আজকে আমি আমার আনারস মার্কা পাইছি। কালীরবাজারের প্রত্যেকটা জনগণ আমার পক্ষে আছে। আমি ২০ বছর রানিং চেয়ারম্যান। আগামীতে আনারস মার্কায় আমাকে সর্বোচ্চ ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে জনগণ আবার তাদের সেবা করার সুযোগ দিবে।’

ভাইরাল হওয়া বক্তব্যের বিষয়ে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী সেকান্দার আলী গতকাল রাতে বলেন, তৃণমূলের ভোটের বিশ্বাসী ছিলাম। তবে নৌকা প্রতীক যিনি পেয়েছেন, তিনি মনোনয়ন পাওয়ার আগেই বলেছেন, দরকার হলে টাকা দিয়ে নৌকা কিনে আনবেন। শেষ পর্যন্ত সেই প্রার্থীর কথাই সত্য হলো। এ জন্য আমি ওই বক্তব্য দিয়েছিলাম।

আদর্শ সদর উপজেলার ১ নম্বর কালীরবাজার ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন নুরুল ইসলাম নুর। তিনি দাবি করেন, তৃণমূলের ভোট কম পেলেও গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট আমার পক্ষে ছিল। এ জন্য দলের মনোনয়ন বোর্ড মনোনয়ন দিয়েছে। তাছাড়া আমার পরিবারের কোনো সদস্য বিএনপি-জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নয়।

আগামী ২৬ ডিসেম্বর এই ইউনিয়নে ভোট হবে। গতকাল প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

ভিডিও সৌজন্যে: যমুনা টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত