প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের রক্তের সম্পর্ক; একদিন সেখানে যেতে ভিসা লাগবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

খালিদ আহমেদ: [২] ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর হয়েছে। আগামী ৫০ বছরে আমাদের যত ধরনের সমস্যা আছে সবগুলোর সমাধান করব। আমরা ডায়ালগ বা আলোচনার মাধ্যমে সব সমস্যার সমাধান করব। আমি তো সেদিনের আশায় আছি, দুদেশের মানুষের আসা-যাওয়ায় কোনো ভিসা লাগবে না। আমরা সড়ক, রেল ও নৌ-পথে আরও কানেকটিভিটি বাড়াতে চাই। ঢাকা পোস্ট

[৩] মন্ত্রী বলেন, ভারতের সোলজার আমাদের জন্য রক্ত দিয়েছেন। আমরা রক্তের সম্পর্ককে আরও গভীরভাবে উদযাপন করতে চাই। ভারতের সঙ্গে ১৮টি দেশে মৈত্রী দিবস পালন করছি। আমরা আশা করব, আগামীতে বাংলাদেশের যত মিশন আছে যৌথভাবে (ভারত ও বাংলাদেশ) আমরা মৈত্রী দিবস পালন করব। এক্ষেত্রে আমি ভারতীয় সরকারের সাহায্য চাই।

[৪] সোমবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

[৫] বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সম্পর্ককে ‘মডেল’ অ্যাখা দিয়ে ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘আমাদের সম্পর্কটা এতটা সলিড যে আমরা সোনালী অধ্যায়ে পৌঁছে গেছি। দুদেশের গভীর সম্পর্কের দিকে সারা পৃথিবী তাকিয়ে আছে। যমুনা টিভি

[৬] ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, বঙ্গবন্ধু না থাকলে এ দেশ নয় মাসে স্বাধীনতা অর্জন করতে পারত না। এটা ভুলে গেলে চলবে না যে কত সময় ধরে দেশটাকে স্বাধীনতা এনে দিতে তিনি লড়াই করে গেছেন। এখন বাইরে কোথাও আর বাংলাদেশকে পরিচয় করিয়ে দিতে হয় না, এটা মর্যাদার।’

[৭] অনুষ্ঠানে ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, ‘বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ায় দক্ষিণ এশিয়ার মানচিত্রই শুধু পরিবর্তন হয়নি, বদলে গেছে এ অঞ্চলের ভূ-রাজনৈতিক অবস্থা ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড। দুদেশের মধ্যে বিদ্যমান সমস্যার সমাধান করে, নতুন প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করে আমাদের সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিতে হবে। এক্ষেত্রে আমাদের সবার দায়িত্ব রয়েছে।’

[৮] সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের কার্যকরী সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ নুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ঢাকায় নিযুক্ত ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েন্টশীল প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত