প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মোরশেদ শফিউল হাসান: শিক্ষার্থীদের বাস ভাড়ায় ছাড় দেওয়ার বিষয়টিকে

মোরশেদ শফিউল হাসান
কোনো দেশে গণপরিবহনে বা অন্যত্র যখন সিনিয়র সিটিজেন, শারীরিক প্রতিবন্ধী কিংবা স্বাধীনতা সংগ্রামীদের (যেমন আমাদের মুক্তিযোদ্ধা) জন্য কোনো সুযোগ-সুবিধা বা ছাড় দেওয়া হয়, তখন কি তা ব্যবসায়ী বা অন্য কোনো মহলের সম্মতি নিয়ে করা হয়? নাকি কল্যাণ রাষ্ট্রের ধারণা থেকে সরকার আইন করে সেটা করেন ও সংশ্লিষ্টরা তা মানতে বাধ্য থাকেন? তবে আমাদের দেশে শিক্ষার্থীদের বাস ভাড়ায় ছাড় দেওয়ার বিষয়টিকে (বলতে খারাপ লাগছে খুব, এমনকি পাকিস্তান আমলেও ছাত্ররা কমবেশি যে সুবিধাটা পেয়েছে) পরিবহন মালিকরা সরকারের সঙ্গে তাঁদের দরকষাকষির বিষয়ে পরিণত করেন কীভাবে?

(বিশ্ববাজারে মূল্য হ্রাসের পরিপ্রেক্ষিতে) তেলের দাম কমানোর দাবিটি যদি যৌক্তিক হয়, সে দাবি তো পরিবহন মালিকরা বা তাঁদের সংগঠন এমনিতেই করতে পারে, তাঁদের তরফে আগেই সরকারের কাছে সেটা তোলা উচিত ছিলো। দুটা বিষয়কে এভাবে যুক্ত করা কেন? স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ও এই বিজয়ের মাসে ছাত্রছাত্রীদের এই সামান্য দাবিটি (১১ দফা আন্দোলনের পর পাকিস্তান সরকারই যে দাবি মেনে নিয়েছিলো) আদায়ের জন্য রাজপথে থাকতে হবে কেন? সুবর্ণজয়ন্তী ও শতবর্ষ উদযাপনের আলোকসজ্জার পাশে ভীষণই বেমানান নয় কি দৃশ্যটি? ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত