প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারীরা দৈনিক ৬ ঘণ্টা মজুরিহীন কাজ করেন

নিউজ ডেস্ক: মজুরিহীন অদৃশ্য কাজের চাপ কমাতে পারলে নারীদের শ্রমবাজারে অংশগ্রহণ বাড়ানো সম্ভব। দেশের ১৫ থেকে ২৯ বছর বয়সী নারীরা দৈনিক ৫ দশমিক ৯৩ ঘণ্টা মজুরিবিহীন গৃহস্থালি কাজ করেন। অন্যদিকে একই বয়সী পুরুষেরা গড়ে ১ দশমিক ৪৯ ঘণ্টা কাজ করেন।

বাসাবাড়িতে রান্নাবান্না, গৃহস্থালির কাজ, বাজার সদাই, সন্তানদের যত্ন — এসব কাজ করে থাকেন নারীরা। কিন্তু তারা মজুরি পান না। এগুলো নারীর অদৃশ্য শ্রম। প্রাপ্তবয়স্ক নারীরা প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৬ ঘণ্টা মজুরিছাড়া গৃহস্থালির কাজ করেন।

অন্যদিকে পুরুষেরা বয়সভেদে গড়ে দৈনিক দেড় থেকে দুই ঘণ্টা এ কাজ করেন। অর্থাৎ নারীরা পুরুষের চেয়ে অন্তত তিন গুণ বেশি শ্রম দেন।

শনিবার সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক অন ইকোনমিক মডেলিং (সানেম) ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘নীতিনির্ধারণে কেয়ার ইকোনমির অন্তর্ভুক্তি”শীর্ষক ওয়েবিনারে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

সানেমের নির্বাহী পরিচালক ড. সেলিম রায়হানের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।

ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এবং সানেমের গবেষণা পরিচালক ড. সায়মা হক বিদিশা।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, ‘মজুরিহীন অদৃশ্য কাজের চাপ কমাতে পারলে নারীদের শ্রমবাজারে অংশগ্রহণ বাড়ানো সম্ভব। দেশের ১৫ থেকে ২৯ বছর বয়সী নারীরা দৈনিক ৫ দশমিক ৯৩ ঘণ্টা মজুরিবিহীন গৃহস্থালি কাজ করেন। অন্যদিকে একই বয়সী পুরুষেরা গড়ে ১ দশমিক ৪৯ ঘণ্টা কাজ করেন।

‘ ৩০ থেকে ৬০ বছর বয়সী নারীরা মজুরিহীন অদৃশ্য কাজ করেন ৫ দশমিক ৮৭ ঘণ্টা। একই বয়সী পুরুষেরা করেন মাত্র ১ দশমিক ৮৭ ঘণ্টা।’

সরকারি বিভিন্ন তথ্য–উপাত্ত ব্যবহার করে এই চিত্র পাওয়া গেছে। -নিউজ বাংলা ২৪

 

সর্বাধিক পঠিত