প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শ্রীপুরে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’, প্ররোচনা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

মোতাহার খান: [২] পৈত্রিক বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করতে হাসিনা নামে এক গৃহবধূকে প্রতিনিয়ত নির্যাতন করতেন তার ছোট বোনের স্বামী সফিকুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা।

[৩] এসব নির্যাতন সহ্য করতে পারেনি হাসিনা। নিরুপায় হয়ে বিষপান করে আত্মহত্যা করেন তিনি। এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় প্রধান আসামি সফিকুলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[৪] গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় শ্রীপুর থানা পুলিশ তাকে কর্ণপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে। এর আগে নিহতের স্বামী বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় সফিকুলসহ ছয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করেন।

[৫] মামলায় অন্য অভিযুক্তরা হলেন- কর্ণপুর গ্রামের বাবুল (৪২), মিজান (৩৮), হারিছুল হক শেক (৩৮), হোসনেআরা খাতুন ময়না (৩৫) ও কোনা পাড়া গ্রামের জামাল (৩৭)।

[৬] হাসিনা খাতুন ঢাকাস্থ লালবাগ থানার জগন্নাথ সাহা রোডের ৫/১ নম্বর বাসার তৌকির আহাম্মদের স্ত্রী। তিন মেয়েকে নিয়ে তিনি কর্ণপুর গ্রামের বাড়িতে বাস করতেন। তার স্বামী তৌকির আহাম্মদ ঢাকায় চাকরি করেন।

[৭] মামলা সূত্রে জানা যায়, ছোট বোন ময়না ও তার স্বামী সফিকুল জমি নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন হাসিনার সঙ্গে। হাসিনাকে বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করতে চক্রান্ত করেন তারা। শুরু করেন নির্যাতন।

[৮] গত ৩১ অক্টোবর নিত্যদিনের মতো ওই গৃহবধূর উঠানে গিয়ে তারা অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন এবং হুমকি দেয়। একপর্যায়ে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে হাসিনা ঘরে গিয়ে বিষের বোতল এনে প্রকাশ্যে বিষপান করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

[৯] মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) প্রদীব কুমার জানান, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক ছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সফিকুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের দ্রুতই গ্রেপ্তার করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত